Home | খেলাধূলা | গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন আর্সেনাল, বায়ার্নের প্রতিশোধ

গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন আর্সেনাল, বায়ার্নের প্রতিশোধ

স্পোর্টস ডেস্ক:  উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে বড় জয় পেয়েছে আর্সেনাল। মঙ্গলবার রাতে ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে এফসি বাসেলকে ৪-১ গোলে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবেই নকআউট পর্বে জায়গা করে নেয় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের দলটি। আর্সেনালের হয়ে হ্যাটট্রিক করেন লুকাস পেরেজ।

গ্রুপের অপর ম্যাচে প্যারিস সেন্ট জার্মেইন (পিএসজি) জয় পেলে অবশ্য তারাই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতো। কিন্তু লোদোগোরেটসের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করে গ্রুপ রানার্সআপ হিসেবেই নকআউটে পা রাখলো পিএসজি।

বাসেলের মাঠ সেন্ট জ্যাকব পার্কে খেলার অষ্টম মিনিটে অ্যালেক্সিস সানচেজের পাস থেকে বল পেয়ে বাম প্রান্তে ক্রস বাড়ান কিয়েরান গিবস। সেখান থেকে বল পেয়ে লক্ষ্যভেদ করে আর্সেনালকে এগিয়ে নেন পেরেজ।

১৬তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন পেরেজ। মেসুত ওজিল ও সানচেজ নিজেদের মধ্যে পাস খেলে গিবসকে বক্সের ভেতরে পাস বাড়ান। তার নেয়া শট বাসেল গোলরক্ষক টমাস ভ্যালিক ফিরিয়ে দিলেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি। কাছে থাকা সুযোগসন্ধানী পেরেজ ফিরতি বলে বুলেটগতির শটে লক্ষ্যভেদ করেন।

বিরতির দুই মিনিট পর নিজের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন পেরেজ। ৪৭তম মিনিটে সানচেজের পাস থেকে গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেন পেরেজ। ছয় মিনিট পর অ্যালেক্স আইয়ুবির গোলে বড় জয় নিশ্চিত হয় গানারদের। ৭৮তম মিনিটে বাসেলের হয়ে সিদু ডোম্বিয়া সান্ত্বনাসূচ গোলটি করেন।

গত মৌসুমে শেষ ষোলো থেকেই বিদায় নিয়েছিল আর্সেনাল। অন্যদিকে ২০০৫-০৬ মৌসুমের পর প্রথমবারের মতো গ্রুপ পর্ব থেকে অপরাজিত থেকে নকআউটে জায়গা করে নিল গানাররা।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের প্রথম লেগে ঘরের মাঠে বায়ার্ন মিউনিখকে ১-০ গোলে পরাজিত করেছিল অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। মঙ্গলবার রাতে ফিরতি লেগে অ্যাটলেটিকোকে একই ব্যবধানে পরাজিত করে সেই হারের বদলা নেই বায়ার্ন। আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় খেলার ২৮তম মিনিটে বাভারিয়ানদের হয়ে জয়সূচক গোলটি করেন রবার্ট লেভানডোভস্কি।

ঘরের মাঠে পিএসজির কপাল ভালোই বলা চলে। লোদোগোরেটসের বিপক্ষে দু’দুবার পিছিয়ে পড়েও শেষ মুহূর্তের গোলে ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়তে সক্ষম হয় ফরাসি চ্যাম্পিয়নরা।

খেলার ১৫তম মিনিটে মিসিজানের গোলে পিছিয়ে পড়ে পিএসজি। ৬১তম মিনিটে অবশ্য এডিনসন কাভানির ওভারহেড কিকে সমতায় ফেরে স্বাগতিকরা।

৬৯তম মিনিটে ফের এগিয়ে যায় লোদোগোরেটস। ওয়ান্ডারসনের গোলে লিড নেয় সফরকারীরা। তবে যোগ করা সময় অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়ার গোলে ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়তে সক্ষম হয় পিএসজি।

‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে বেনফিকাকে ২-১ গোলে পরাজিত করে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবে শেষ ষোলোতে জায়গা করে নেয় নাপোলি। বেনফিকা হেরে যাওয়ায় ডায়নামো কিয়েভের মাঠে জয় পেলে নকআউটে যাওয়ার সুযোগ পেত বেসিকটাস। তবে কিয়েভ থেকে ০-৬ গোলে বিধ্বস্ত হয়ে ফেরা দলটির সেই স্বপ্ন চূর্ণ হয়। ফলে হেরে গিয়েও নকআউটে জায়গা করে নেয় বেনফিকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শুক্রবার ঢাকা আসছেন ভারতের সেনাপ্রধান

স্টাফ রিপোর্টার :  সেনাপ্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হকের আমন্ত্রণে ঢাকা আসছেন ...

কুমিল্লা ও সুনামগঞ্জে বৃহস্পতিবার ব্যাংক বন্ধ

স্টাফ রিপোর্টার :  জাতীয় সংসদের সুনামগঞ্জ-২ আসন ও কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন উপলক্ষে ...