Home | ফটো সংবাদ | গুরু শিষ্যের লড়াইয়ে পরিকল্পিতভাবে দিনাজপুরে পীর ও গৃহকর্মী হত্যা

গুরু শিষ্যের লড়াইয়ে পরিকল্পিতভাবে দিনাজপুরে পীর ও গৃহকর্মী হত্যা

শাহ্ আলম শাহী, দিনাজপুর থেকেঃ মতপার্থকের জের ও গুরু শিষ্যের লড়াইয়ে পরিকল্পিতভাবে দিনাজপুরের কথিত পীর ফরহাদ হাসান চৌধুরী ও তার গৃহকর্মী রুপালী বেগমকে হত্যা করা হয়েছে। এই হত্যাকান্ডের সঙ্গে কুড়িগ্রামের আরেক কথিত পীরসহ আরও অনেকেই জড়িত রয়েছেন বলে পীর হত্যায় জড়িত সন্দেহে আটক দু’জন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে  বলে সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছে দিনাজপুর পুলিশ সুপার হামিদুল আলম।
পুলিশ সুপারের কার্যালযে তিনি শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টায় সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, পীর ইসাহাক শাহ্ নামায পড়ার পক্ষে থাকলেও  পীর ফরহাদ হোসেন চৌধুরী ছিলেন নামায পড়ার বিপক্ষে। এ কারণে এলাকার আজিমুদ্দিনের ছেলে বাবু’র সহযোগিতায় পীর ইসাহাক আলী রামপুর গ্রামে নতুন করে পুথক দরবার শরীফ গড়ে তুলেন। এ নিয়ে কথিত দুই পীরের মধ্যে মতোবিরোধ ও দ্ব›দ্ব শুরু হয। এক পর্যায়ে পীর ইসাহাক আলী পরিকল্পনা নেয় পীর ফরহাদ হোসেন চৌধূরীকে হত্যার। পরিকল্পনা অনুযায়ী ১৩ মার্চ সন্ধায় খাদেম সাইফুল হককে দিয়ে পীর ফরহাদ হোসেন চৌধুরীকে দরবার শরীফে ডেকে আনা হয। রাত আনুমানিক সাড়ে ৭টার দিকে বাবুসহ ৩ যুবক দরবার শরীফে ফরহাদ হোসেন চৌধুরীর ঘরে প্রবেশ করে ফরহাদ চৌধুরীকে গুলি করে। মুত্যু নিশ্চিত হয়ে বের হওয়ার সময় ঘাতক বাবুকে গৃহকর্মী রুপালী দেখে ফেলে। তাৎক্ষনিকভাবে রুপালীকেও গুলি করে হত্যা করা হয়। এ সময় দরবারের খাদেম সাইদুল হক উপস্থিত ছিলেন।

শুক্রবার (১৭ মার্চ) দুপুর সাড়ে ১২টা  থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত দিনাজপুরের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে এই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন আটক হওয়ায় আরেক কথিত পীর ইসহাক আলী ও বোচাগঞ্জ উপজেলার দৌলা এলাকায় কাদেরিয়া মোহাম্মদিয়া দরবার শরীফের প্রধান খাদেম সাইদুর রহমান বলে সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন দিনাজপুর পুলিশ সুপার হামিদুল আলম।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, কুড়িগ্রাম থেকে সন্দেহমূলকভাবে আটক হওয়া আরেক পীর ইসহাক আলী ও খাদেম সাইদুর রহমানকে দিনাজপুর অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে নিয়ে আসা হয়। সেখানে আদালতের বিচারক এফএম আহসানুল হকের কাছে তারা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।
তিনি জানান, ‘জবানবন্দিতে তারা জানিয়েছে মতপার্থকের জের ও গুরু শিষ্যের লড়াইয়ে পরিকল্পিতভাবে দিনাজপুরের কথিত পীর ফরহাদ হাসান চৌধুরী ও তার গৃহকর্মী রুপালী বেগমকে হত্যা করা হয়েছে। এই হত্যাকান্ডের সঙ্গে আরও অনেকেই জড়িত রয়েছে বলে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে তারা জানিয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে সিটি কাউন্টার টেরোরিজম তদন্ত দলের প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহফুজ্জামান  আশরাফ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিজানুর রহমানসহ পুলিশের উধবর্তন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
ইহসাক আলী কুড়িগ্রাম জেলার ভুরুঙ্গামারী উপজেলার পাথরডুবি গ্রামের পীর আজিম উদ্দিনের ছেলে ও খাদেম সাইদুর রহমান বোচাগঞ্জের দৌলা গ্রামের মৃত ফয়জুল হকের ছেলে।

উল্লেখ্য, সোমবার (১৩ মার্চ) রাত ৯টার দিকে বোচাগঞ্জ উপজেলার দৌলা এলাকায় কথিত পীর ফরহাদ হাসান চৌধুরী ও তার গৃহকর্মী রুপালী বেগম গুলি করে হত্যা করা হয়। ফরহাদ হোসেন চৌধুরী দিনাজপুর পৌর বিএনপি’র সাবেক সভাপতি। তিনি ছিলেন দিনাজপুর জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রæপের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। পরে ওই সংগঠনের সাধারণ সম্পাদকও নির্বাচিত হন।
স্থানীয় ও স্বজনেরা জানান, ২০০৬ সালের দিকে ফরহাদ হাসান চৌধুরী রাজনীতি ছেড়ে দেন। এ সময় তার সঙ্গে পরিচয় কুড়িগ্রামের পীর দাবি করা ইসাহাক আলীর। তিনি পীর হযরত আব্দুল কাদের জিলানীর (রহ:) অনুসারী ছিলেন। তার সঙ্গে বেশ কিছুদিন চলাফেরার পর ২০১০ সালের দিকে বোচাগঞ্জ উপজেলার দৌলা গ্রামে কাদেরিয়া মোহাম্মদিয়া দরবার শরীফ নির্মাণ করেন ফরহাদ চৌধুরী। এর আগে থেকেই তার বেশ কিছু মুরিদ ও অনুসারী ছিল। দরবার শরীফ নির্মাণ করার পর তার মুরিদ ও অনুসারীদের সংখ্যা বাড়তে থাকে। এখন পর্যন্ত প্রায় সাত শতাধিক মুরিদ ও অনুসারী রয়েছে। প্রত্যেক সোমবার ও বৃহস্পতিবার রাতভর জিকির চলে। এছাড়াও বৈশাখ মাসে বড় অনুষ্ঠান (ওরস) হয় যেখানে হাজার লোকের সমাগম ঘটে।

জানা যায়, এই দরবার শরীফে মাঝেমধ্যেই আসতেন ‘পীর’ ইসাহাক আলী। তবে ২-৩ বছর আগে ইসাহাক আলীর সঙ্গে ফরহাদ চৌধুরীর মতবিরোধ দেখা দেয়। এরপর থেকে তিনি আর দরবার শরীফে আসতেন না, তবে ওই এলাকায় তার কয়েক মুরিদের বাড়িতে যাওয়া আসা করতেন। প্রায় দুই সপ্তাহ আগেও তিনি এই গ্রামে বেড়াতে এসেছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বিপথগামীদের সুপথে ফেরার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

স্টাফ রিপোর্টার :  বিপথগামীদের সুপথে ফিরে আসার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ...

এবার প্রকাশ্যে সদরের এমপিকে তুলোধুনো করলেন বক্তারা টাকার বিনিময়ে নাসিরনগরে মদ ব্যবসায়ীকে মনোনয়ন দিয়েছে: মৎস্য মন্ত্রী সায়েদুল হক

  তৌহিদুর রহমান নিটল, ব্রাহ্মনবাড়িয়া, আড়ালে আবডালে নয়, প্রকাশ্যে জনসম্মুখে হাজার হাজর ...