Home | আন্তর্জাতিক | খুলনায় জাতির জনকের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত

খুলনায় জাতির জনকের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত

এম শিমুল খান, খুলনা প্রতিনিধি, ১৭ মার্চ, বিডিটুডে ২৪ডটকম : বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৩তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে আজ খুলনায় পালিত হয়।  ১৯২০ সালের এদিনে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় সম্ভ্রান্ত শেখ পরিবারে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। এ উপলে নগরীতে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ, র‌্যালি, শিশু সমাবেশ, বক্তৃতা, কবিতাপাঠ, রচনা ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, প্রামাণ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শন, ধর্মীয় অনুষ্ঠানে দোয়া-মাহফিলসহ অন্যান্য অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়। রবিবার সকালে খুলনা জিলা স্কুল মাঠে খুলনা জেলা প্রশাসন শিশু সমাবেশ, আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠারে আয়োজন করে। ‘স্বাধীনতার চেতনায় মোরা গড়বো দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ শোগান নিয়ে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক জাতির জনকের জীবনী ও বাংলাদেশ সৃষ্টিতে তাঁর ভূমিকা উলেখ করে বলেন, শতাব্দীর মহানায়ক, বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্রষ্টা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম না হলে এদেশ স্বাধীন হতো কিনা সন্দেহ।  তিনি তাঁর বলিষ্ঠ নেতৃত্ব ও দূরদর্শিতা  দিয়ে বাঙালি জাতিকে স্বাধীনতার মন্ত্রে উজ্জীবিত করেছিলেন। বঙ্গবন্ধু তাঁর জীবনে বহুবার কারাভোগ করেছেন, অনেক নির্যাতন ও কষ্ট সহ্য করে এ দেশকে স্বাধীন করেছেন।  বঙ্গবন্ধু জাতির জন্য যা কিছু করেছেন যুগ যুগ ধরে তা আমাদের সামনে এগিয়ে যাওয়ার অনুপ্রেরণা যোগাবে। তিনি লেখাপড়া সাথে সাথে জাতির সঠিক ইতিহাস জানার জন্য শিশুদের প্রতি আহ্বান জানান। এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন।  বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আব্দুল জলিল, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল খুলনা মহানগর ইউনিটের আহবায়ক অধ্যাপক আলমগীর কবীর, জিলা স্কুলের প্রধান শিকিা মালেকা বেগম প্রমূখ। বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের স্বাধীনতার মহাকাব্যের রচয়িতা। তিনি গণমানুষকে ঐক্যবদ্ধ করে একই পতাকা তলে একীভূত করেছিলেন। ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণের মধ্য দিয়ে তাঁর নেতৃত্বে সূচিত হয়েছিল বাংলাদেশের স্বাধীনতা। এ অনুষ্ঠানে বিভাগীয় ও জেলা প্রশাসনের উদ্বর্তন কর্মকর্তাসহ সরকারি কর্মকর্তা, বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিভিন্ন স্কুলের শিক এবং শিার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। এর আগে সকাল ৮টায় সিটি মেয়রের নেতৃত্বে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি নিউ মার্কেট হতে শুরু হয়ে খুলনা বেতারে নির্মিত জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে। দুপুরে দুঃস্থ ও ভবঘুরে শিশুদের আপ্যায়ন, বাদজোহর সকল মসজিদে বিশেষ দোয়া করা হয়। সকল শিা প্রতিষ্ঠানে জাতির জনকের জীবন ও আদর্শ এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা সম্পর্কে আলোচনা, ভ্রাম্যমাণ চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, সংবাদপত্রসমূহে বিশেষ নিবন্ধ ও ক্রোড়পত্র প্রকাশ করা হয়।  বাংলাদেশ বেতার খুলনা দিনব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠানমালাও প্রচার করে।


x

Check Also

অবশেষে পর্তুগালের লিসবনে মোহাম্মদ হান্নানের জানাজা ও দাফন সম্পন্ন

আনোয়ার এইচ খান ফাহিম ইউরোপীয় ব্যুরো প্রধান, পর্তুগালঃ বাংলাদেশের কেরানীগঞ্জের মোহাম্মদ হান্নানের ...

পর্তুগাল মাল্টি কালচারাল একাডেমি’র হলরুমে বর্নিল আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

আনোয়ার এইচ খান ফাহিম, ইউরোপীয় ব্যুরো প্রধান,পর্তুগালঃ পর্তুগালের লিসবনে বাংলাদেশী অধ্যুষিত এলাকা রুয়া ...