ব্রেকিং নিউজ
Home | বিবিধ | কৃষি | ক্ষেতলালে প্রচন্ড ক্ষরায় রোপা আমন চাষে ফলন বিপর্যয়ের আশঙ্কা

ক্ষেতলালে প্রচন্ড ক্ষরায় রোপা আমন চাষে ফলন বিপর্যয়ের আশঙ্কা

 

এস. এম. শামীম, ক্ষেতলাল, জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃ ক্ষেতলাল উপজেলাতে ক্ষরার মুখে রোপা আমন ধান চাষে ফলন বিপর্যয় ঘটার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। গত ১ মাস ধরে ক্ষেতলাল উপজেলায় কাঙ্খিত বৃষ্টিপাত না হওয়ায় রোপা আমন ধান চাষে সেচ সংকট দেখা দেয়। ফলে ধানের জমি ফেটে চৌচির হয়ে যাচ্ছে। অধিকাংশ জমিতে ধানের গাছ লালচে হয়ে মরে যাচ্ছে এবং আগাছা ব্যাপকভাবে দেখা দিয়েছে। এবার আমন ধানের জমিতে আগাছার সাথে বিভিন্ন পোকা-মাকড়ের আক্রমন দেখা দিয়েছে। আর যে সব জমিতে সময়মত সেচ দেওয়া হচ্ছে এসব জমির ধানের গাছ ভালো রয়েছে। তবে উৎপাদন খরচ বেড়ে যাচ্ছে বলে বড়াইল ইউনিয়নের দক্ষিণ হাটশহর গ্রামের কৃষক মোঃ আনিছুর মোল্ল্যা, ক্ষেতলাল পৌরসভাধীন সাগরামপুর গ্রামের মোঃ আত্তাব হোসেন সরকার, সূর্যবান গ্রামের মোঃ রুহুল আমীন সরদারসহ আরো কৃষক মহল জানান। ক্ষেতলাল উপজেলার ১টি পৌরসভা ও ৫টি ইউনিয়ন, তুলশীগংগা, বড়াইল, মামুদপুর, আলমপুর, বড়তারা ইউনিয়নসহ ক্ষেতলাল পৌরসভার কৃষকরা বৃষ্টির পানির উপর নির্ভর করে। গত মাসের ন্যায় যদি আশ্বিন মাসে অনাবৃষ্টির কারণে এসব জমিতে আমন ধানের ফলন না হওয়ার আশঙ্কায় দিশেহারা কৃষকরা। উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায় এবার উপজেলায় রোপা আমনের লক্ষ্য মাত্রা ১১৪০৮ হেক্টর, অর্জিত লক্ষ্য মাত্রা ১১০৫০ হেক্টর আর উৎপাদন লক্ষ্য মাত্রা ৩০৯৪৭ মেঃটন। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব পড়ায় গত কয়েক বছর ধরে বৃষ্টিপাত কমে যাওয়ায় খরার প্রবনতা বৃদ্ধি পেয়েছে। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আ.ন.ম আনোয়ারুল হাসান জানান আশ্বিন মাসের প্রথম ও দ্বিতীয় সপ্তাহে বৃষ্টিপাত হলে তেমন কোন ক্ষতি হবেনা। জমিতে ধান চাষ করতে গিয়ে অতিরিক্ত সেচ ও সার প্রয়োগ করায় উৎপাদন খরচ বেড়ে গেলেও উৎপাদিত ধানের ন্যায্য মূল্য না পাওয়ার কারনে কৃষকরা চলতি বছরে রোপা আমন চাষের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে যাচ্ছে। ক্ষেতলাল উপজেলার কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলাতে মোট আবাদযোগ্য জমির উৎপাদিত ৩০ শতাংশ উপজেলাবাসী ব্যবহার করে এবং উৎপাদিত ৭০ শতাংশ ধানচাল রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ঘাটতি পূরণের জন্য বানিজ্যিক ভাবে পাঠানো হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

দিনাজপুরে প্রতিমন ধান বিক্রি করে মিলছে একজন শ্রমিক !

দিনাজপুর প্রতিনিধি :  উত্তরের শষ্যভান্ডার দিনাজপুরে ধানের ভালো ফলন পেয়েও ভালো নেই ...

দিনাজপুরে ইটভাটার বিষাক্ত ধোঁয়ায় ৫’শ একর জমির ফসল বিনষ্ট

দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরে খানসামা ও বীরগঞ্জে চারটি ইটভাটার বিষাক্ত কালো ধোঁয়ায় ...