Home | বিবিধ | পরিবেশ | কুড়িগ্রামে জেলেদের জালে ধরা পড়া ডলফিনটি রংপুর চিড়িয়াখানায় অবমুক্ত

কুড়িগ্রামে জেলেদের জালে ধরা পড়া ডলফিনটি রংপুর চিড়িয়াখানায় অবমুক্ত

অনিরুদ্ধ রেজা, কুড়িগ্রাম : কুড়িগ্রামে জেলেদের জালে ধরা ডলফিনটি এখন রংপুর চিড়িয়াখানায় অবমুক্ত করা হয়েছে। ডলফিনটি চিড়িয়াখানার লেকে অবমুক্ত করেন রংপুর চিড়িয়াখানার ডেপুটি কিউরেটর ডা. মো. জসিম উদ্দিন।

কুড়িগ্রামের ধরলা নদীতে ৪ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার বিকাল ৪টা নাগাদ মৎস্য আহরণে ব্যস্ত কয়েকজন জেলের জালে হঠাৎ করে ধরা পরে একটি ডলফিন।

জেলেরা ডলফিনটি বিক্রির উদ্দেশ্যে বাজারে নিলে কয়েকজন যুবক ১৫ হাজার টাকার বিনিময়ে কিনে নেন সেই ডলফিন। এরপর তা এলাকাবাসীকে দেখানোর জন্য নেওয়া হয় জেলার রাজারহাট উপজেলার ছিনাই বাজারে।

ছিনাই ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য সোবহান আলী জানান, মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৫ টায় ইউএনও ছিনাই বাজারে উপস্থিত হয়ে ডলফিন ক্রয়কারী যুবকদের বুঝিয়ে ডলফিনটি দ্রুত পানিতে রাখার ব্যবস্থা নেন। স্থানীয় এক ব্যক্তির নির্মানাধীন বাড়িতে ঘরের ভেতর গর্ত করে পলিথিন বিছিয়ে পানিতে রাখা হয় ডলফিনটি।

রই মধ্যে ইউএনও যোগাযোগ করেন রংপুর চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষের সাথে। খবর পেয়ে গাড়ি ও জনবল নিয়ে ছুটে আসেন রংপুর চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ।

চিড়িয়াখানা কর্তপক্ষ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে প্রথমেই ডলফিনটির স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন। এরপর ডলফিনটি পরিবহনের জন্য প্রয়োজনীয় প্রক্রিয়া শুরু করেন।

রাত ১২ টার দিকে স্থানীয় যুবকরা ডলফিনটিকে কোলে করে রংপুর চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষের গাড়িতে তুলে দেন।

রংপুর চিড়িয়াখানার ডেপুটি কিউরেটর ডা. মো. জসিম উদ্দিন ডলফিনটির স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর জানান, দীর্ঘক্ষণ পানির বাইরে থাকা এবং ভ্যান গাড়িতে করে বেঁধে পরিবহনের ফলে ডলফিনটি দুর্বল হয়ে গেছে। আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টায় এটিকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনার চেষ্ট করবো।

ধরলায় ধরা পরা এই প্রাণিটির পরবর্তী আশ্রয়স্থল বিষয়ে প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা ডলফিনটি রংপুর চিড়িয়াখানার লেকে ছেড়ে দেব। ডলফিনটি বাঁচিয়ে রাখার জন্য আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো। এটি বাঁচিয়ে রাখতে পারলে সেটি হবে আমাদের বিশেষ পাওয়া।’

ইউএনও মো. রাশেদুল হক প্রধান জানান, এটি একটি বিলুপ্ত প্রায় প্রাণি। এমন জলজ প্রাণিদের টিকিয়ে রাখার দায়িত্ব আমাদের সকলের। ডলফিন ধরা পরার খবর পাওয়া মাত্র তা অবমুক্ত করার জন্য আমি নিজে ছুটে এসেছি এবং যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট তা হস্তান্তরের ব্যবস্থা নিয়েছি।

উল্লেখ্য যে, ৪ সেপেটম্বর মঙ্গলবার দুপুরে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় ধরলা নদীতে শেখ হাসিনা ধরলা সেতুর ১ কিলোমিটার পশ্চিমে জেলেদের জালে ধরা পরে প্রায় আড়াই মন ওজনের (১’শ কেজি) একটি ডলফিন। এর আগে চলতি বছরের জুন মাসে (২১ জুন) ধরলা নদীতে নির্মল বিশ্বাস নামে এক জেলের জালে দু’টি ডলফিন ধরা পড়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

১০ বছর পর রক্ষিত স্বর্ণ নিলামের উদ্যোগ

স্টাফ রির্পোটার : বাংলাদেশ ব্যাংকে রক্ষিত স্বর্ণ নিলামের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। খুব শিগগিরই ...

এরা ছোকড়া-টোকাই, কারা এদের ভাড়া করেছে : ড. কামাল

স্টাফ রির্পোটার : শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে হামলা ‘কোনোভাবে মেনে নেওয়া যায় না’ উল্লেখ ...