Home | সারা দেশ | কালিয়াকৈরে শিক্ষিকার বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত প্রতিবেদন অবশেষে ডিডি অফিসে প্রেরন

কালিয়াকৈরে শিক্ষিকার বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত প্রতিবেদন অবশেষে ডিডি অফিসে প্রেরন

গাজীপুর প্রতিনিধি ॥
গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার ৭০ নং কাঞ্চনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিনামুল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরনে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা ফারজানা হকের বিরুদ্ধে টাকা নেওয়ার অভিযোগের তদন্ত প্রুিতবেন অবশেষে ডিডি অফিসে প্রেরন করেছেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা । অভিযোগসুত্রে ও পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ মাধ্যমে জানাগেছে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা বিনামুল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরনের সময় সকল বিষয়ে উত্তির্ণ ১৩০ জন শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ১০০ টাকা এবং যেসকল শিক্ষার্থী একটি বিষয়ে অকৃতকার্য্য হয়েছে তাদের নিকট থেকে ২০০ টাকা করে আদায় করেন। ঘটনাটি অভিভাবকসহ বিভিন্ন জাতীয় সংবাদ পত্রিকায় খবরটি প্রকাশিত হলে উপজেলা প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষিত হয় এবং উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শিখারানী বিশ^স ওই শিক্ষিকাকে কারন দর্শানো নোটিশ প্রদান করেন। নোটিশের জবাব সন্তোষ জনক না হওয়ায় শিক্ষাকর্মকর্তা পুনরায় শিক্ষিকাকে নোটিশ প্রদান করেন। পরে উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ জাহাঙ্গীর আলম ও ওই স্কুলের দায়ীত্বে থাকা এটিও দিলারা জামানকে বিষয়টি তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়। তদন্তে ছাত্র/ছাত্রীদের কাছ থেকে টাকা নেয়ার প্রমান পাওয়া গেছে বলেও জানান শিখারানী বিশ^াস । কারন দর্শানো নোটিশের জবাব, তদন্ত প্রতিবেদন ও অভিভাবকদের অভিযোগপত্র জেলা শিক্ষা অফিসারের নিকট পাঠানো হয়েছে।এব্যাপারে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ শফিউল হক মোবাইলে জানান, টিও এবিষয়ে পুর্বে আমাকে কিছুই জানাইনি। সোমবার কালিয়াকৈর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার প্রেরিত তদন্ত প্রতিবেদন আমি হাতে পেয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য চিঠি ডিডি অফিসে পাঠিয়েছি। অপরদিকে ওই স্কুলের শিক্ষার্থীদের অভিভাবকগণ ও স্কুল ম্যানেজিং কমিটির কয়েকজন সদস্যের স্বাক্ষরিত প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে ছাত্রছাত্রীদের কাছ থেকে টাকা নেওয়া ,বিলম্ভে স্কুলে আসা এবং স্কুল ছুটির আগের স্কুল থেকে চলে যাওয়াসহ নানা অনিয়ম উল্লেখ করে একটি অভিযোগপত্র ১১ জানুয়ারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর জমাদেন । অভিযোগে শিক্ষিকার বদলীসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করার দাবী জানানো হয়েছে।এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান অভিযোগপত্র হাতে পেয়ে বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সংশ্লিষ্ট শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে পাঠানো হয়েছে।সরকার মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিতকল্পে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় হতে ২০১৭ সালের ১৬ মার্চ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের প্রথম ও শেষ দুটি ক্লাস নেওয়ার নির্দেশনাসহ পনেরটি নির্দেশনা সম্বলিত পরিপত্র জারি করেছিল ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

কালিয়াকৈরে বাসের ধাক্কায় একজন পথচারী নিহত

হুমায়ুন কবির,কালিয়াকৈর(গাজীপুর)প্রতিনিধি। ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার শ্রীফলতলী এলাকায় মঙ্গলবার রাত পৌনে ...

টুঙ্গিপাড়ায় অগ্নিকান্ডে ৬টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভস্মীভূত

টুঙ্গিপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার পাটগাতি বাজারে আগুনে পুড়ে গেছে ...