Home | সারা দেশ | কালিয়াকৈরে ঘন ঘন লোডশেডিংয়ে বিপর্যস্ত জনজীবন

কালিয়াকৈরে ঘন ঘন লোডশেডিংয়ে বিপর্যস্ত জনজীবন

হুমায়ুন কবির,কালিয়াকৈর(গাজীপুর)প্রতিনিধি।
গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় একদিকে বৈশাখের প্রচন্ড খরতাপ,অন্যদিকে বিদ্যুতের নিয়মিত আসা-যাওয়ার লুকোচুরিতে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে স্থানীয় জনজীন। সরকারের হিসাব মতে দেশে কোন বিদ্যুতের ঘাটতি না থাকলেও বিদ্যুতের ভয়াবহ লোডশেডিংয়ের অব্যাহত যন্ত্রনায় অতিষ্ট হয়ে উঠেছে কালিয়াকৈর বাসীর জনজীবন। সকাল হতে না হতেই সূর্যেও তাপ মাত্রা বৃদ্ধিও সঙ্গে সঙ্গে সময়-অসময়ে দেখা দিচ্ছে কথিত বিদ্যুৎ সঞ্চালনের লাইনে ক্রুটি। বিতরন ও সঞ্চালন ব্যবস্থার ক্রুটির কারনে সাধারন মানুষকে দুঃসহ গরমে দিন-রাতই পোহাতে হচ্ছে লোডশেডিংয়ের তীব্র যন্ত্রনা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে উপজেলাবাসীর জনজীবন।
প্রতিদিনই ঢাকা পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-১ এর কালিয়াকৈর,চন্দ্রা ও মৌচাক জোনাল অফিসের সাবষ্টেশন থেকে ঘন ঘন লোডশেডিং দিয়ে উপজেলার জনজীবন অতিষ্ট করে তুলেছে। বোয়ালী ইউনিয়নে বিভিন্ন এলাকায় শুক্রবার সকাল ৬টার পর বিদ্যুৎ চলে গিয়ে পূনরায় বিদ্যুৎ আসে বিকাল ৫টার সময়। সফিপুর এলাকায় রমজান মাসেও চলছে বিদ্যুতের নিয়মিত আসা-যাওয়ার খেলা।রোজার মাসে ঘন বসতি পূর্ন উপজেলার সফিপুরের বৃহৎ আবাসিকএলাকার জনজীবন অতিষ্ট হয়ে পড়েছে গত কয়েক দিনে। এ ছাড়াও উপজেলার আটাবহ ইউনিয়ন,সূত্রাপুর ইউনিয়ন,ঢালজোরা ইউনিয়ন,ফুলবাড়িয়া ইউনিয়ন,বোয়ালি ইউনিয়ন ও মৌচাক ইউনিয় থেকে শুক্রবার সকাল থেকে বিদ্যুৎ না থাকার একাধিক অভিযোগ পাওয়া যায়।
একদিকে যখন বিদ্যুৎ থাকে না এমন সময় বিদ্যুৎ বিভাগের অফিসিয়াল নাম্বারে ফোন করেও ফোন ব্যাস্ত পাওয়া যায়। আবার ফোন রিসিভ করলেও দুর্ব্যবহার করা হয় গ্রাহকদের সাথে এমন অভিযোগও রয়েছে গ্রাহকদের। গত কয়েকদিনের প্রচন্ড তাপদাহ যত তীব্র হচ্ছে,বিদ্যুতের লোডশেডিং যেন ততই পাল্লাদিয়ে বাড়তে থাকে। দিনে কয়েক ঘন্টাব্যাপী লোডশেডিং দিয়ে যাত্রা শুরু হয়। সন্ধ্যার পরে দ্বিতীয় ধাপে আর রাতে চলে আসা-যাওয়ার পালাক্রম যা শেষ রাত পর্যন্ত চলে। তাছাড়া রমজান মাসে ঘন ঘন লোডশেডিংয়ের বিদ্যুৎ সংকটের ফলে বিপর্যয়ের মুখে রয়েছে কালিয়াকৈর উপজেলার স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা এছাড়াও প্রায় ছোট বড় তিন শতাধিক শিল্প কারখানা,বিদ্যুৎ নির্ভরশীল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান,অফিসিয়াল কার্যক্রম,হাসপাতাল ও বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসাসেবা চরম ভাবে বিঘিœত হচ্ছে।
সফিপুর বাজার মার্কেটের বস্ত্র ব্যবসায়ী সমিতির এক সদস্য ও দোকান মালিক জানান, কারনে-অকারনে বিদ্যুতের লোডশেডিং দেখা দিচ্ছে এব্যাপারে অফিসে যোগাযোগ করা হলে আমদের সাথে ভাল আচরন করা হয়না বরং কথা না বলে সাথে সাথে মোবাইল ফোনের লাইন কেটে দেন। এবার রমজানের শুরুতে বৈশাখের ভয়াবহ খরতাপ অন্যদিকে বিদ্যুতের লোডশেডিংয়ের কারনে বিদ্যুৎ আসা-যাওয়া করায় ক্রেতারা মার্কেটমুখী হচ্ছেন না। আমরা বসে বসে দিন পার করছি। কালিয়াকৈর বাজারের মোবাইল মার্কেটের এক মেকার জানান, বর্তমানে ডিজিটাল যুগ, প্রায় সকল কিছুই নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে মোবাইল ফোন এবং কম্পিউটারের মাধ্যমে কিন্তু ঘন ঘন বিদ্যুতের লোডশেডিংয়ের কারনে আমাদেরকে বিভিন্ন সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। খরিদ্দারের সাথে দেয়া কথামত সঠিক ভাবে মালামাল ডেলিভারি দিতে পারছি না।
ভোক্তভোগি জামিরুল ইসলাম জানান,এক ঘন্টা পর পর বিদ্যুৎ চলে যায়। আবার অনেক সময় বিদ্যুৎ থাকলেও ভোল্টেজ ওঠানামা করায় ফ্্িরজ ও বিভিন্ন প্রকার খাদ্য সামগ্রী নষ্টসহ দৈনন্দিন কাজে ব্যাঘাত ঘটছে। বিদ্যুৎ আসা-যাওয়ার ফাঁেদ পড়ে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার বিঘœ সৃষ্টি করছে। তবে কালিয়াকৈর উপজেলার ঘন ঘন লোডশেডিং হওয়ার পেছনে বরাদ্ধ নির্দিষ্ট মেগাওয়াটের বিপরীতে অতিরিক্ত বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া এবং লোডশিডিং দিয়ে বড় বড় কারখানায় বিদ্যুৎ সরবরাহের করা হয় বলে মনে করছেন স্থানীয় সচেতন মহলসহ ভোক্তভোগিরা। ঢাকা পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-১ এর কালিয়াকৈর জোনাল অফিসের প্রকৌশলি আকবর আলীর সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান,বিভিন্ন এলাকায় লাইন মেরামতের কাজ করা হলে তখন ওই এলাকার বিদ্যুৎ লাইন সাময়িকের জন্য বন্ধ রাখা হয়। এটাকে লোডশেডিং বলা যায় না।কালিয়াকৈর চন্দ্রা জোনাল অফিসের প্রকৌশলি কামরুজ্জামানের সাথে মোবাইলে বেশ কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বিয়ের প্রলোভনে প্রতারণার ফাঁদে কলেজ ছাত্রী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রেমিক মোঃ সিরাজুল খানের-(২৭) বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ...

৪ জেলায় বন্যার পরিস্থিতি আরো অবনতির শঙ্কা

ডেস্ক রির্পোট : আগামী ২৪ ঘণ্টা মানিকগঞ্জ, রাজবাড়ী, ফরিদপুর ও মুন্সীগঞ্জে বন্যার ...