Home | সারা দেশ | কালিয়াকৈরে আলোয়ার বিলে উপজেলা চেয়ারম্যানের প্রচেষ্টায় খাল খননের উদ্যোগ

কালিয়াকৈরে আলোয়ার বিলে উপজেলা চেয়ারম্যানের প্রচেষ্টায় খাল খননের উদ্যোগ

 

হুমায়ুন কবির,কালিয়াকৈর(গাজীপুর)প্রতিনিধি।
গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার চাপাইর ইউনিয়নের আলোয়ার বিলে কৃষকের শত শত বিঘা জমির ধান তলিয়ে যাওয়ার আশংকায় ওই বিলে পানি সরিয়ে নিতে উদ্যোগ নিয়েছেন কালিয়াকৈর উপজেলা প্রশাসন। মঙ্গলবার দুপুরে ওই বিল পরিদর্শনে গিয়ে নবনির্বাচিত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ভাইসচেয়ারম্যান এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওই বিল থেকে খাল খনন করে দ্রুত পানি নিস্কাশনের মাধ্যমে কৃষকের জমির ধান বাঁচাতে পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন। এ উপলক্ষে উপজেলার চাপাইর ইউনিয়ন পরিষদের সামনে বটতলায় কৃষক সমাবেশ ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
জানা যায়, উপজেলার মেদিয়াশুলাই, নিকলাখালী, মাঝিপাড়া,গোবিন্দ পুর, আষারিয়াবাড়ী,চাপাইরসহ আশেপাশের হাজার হাজার বিঘা জমিতে কৃষকরা ধানের চাষ করেছেন। ওই সব ফসলের জমি থেকে পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় একটু বৃষ্টি হলেই ফসল জলাবদ্ধতার পানিতে তলিয়ে গিয়ে প্রতিবছরই কৃষকের ফসল ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। ওই খালগুলো খনন করে পানি সড়িয়ে নিলে হাজার হাজার বিঘা জমির ধান রক্ষা করা যাবে বলে কৃষকরা প্রত্যাশা করেন।
এবার আগে থেকেই বৃষ্টি হওয়ার কারনে এ সব জমির ধান প্রায় পানির নীচে তলিয়ে রয়েছে। শুধু ধানের ছড়ার অর্ধেকটা জেগে আছে। দ্রুত পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় সামান্য বৃষ্টি হলেই আধাপাকা ও থুরধান গুলো পানির নীচে তলিয়ে গিয়ে প্রচুর ধান নষ্ট হয়ে যাবে। বিল থেকে পানি নামার জন্য সরকারী জমিতে খাল রয়েছে। সরু ও ভরাট হয়ে যাওয়া ওই খাল গুলো খনন করে দ্রুত পানি সড়ানোর ব্যবস্থা করলে হাজার হাজার বিঘা জমির ধান রক্ষা করা যাবে। যার ফলে ওই এলাকার কৃষকরা দীর্ঘদিন যাবত সরকারি ওই খাল খনন ও পানি সরিয়ে নেওয়ার দাবী জানিয়ে আসছে। ফলে নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান মো.কামাল উদ্দিন সিকদারের প্রচেষ্টায় ওই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। পরে ওই মত বিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন সিকদার, ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম আজাদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা কাজী হাফিজুল আমিন, প্রকল্প কর্মকর্তা আহম্মেদ রেজা আল মামুন, ফুলবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হাকিম, ঢালজোড়া ইউপি চেয়ারম্যান আকতারুজ্জামান, বোয়ালী ইউপি চেয়ারম্যান শাহাদত হোসেন, আলীম আল রাজীব,জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক রাকিব মোল্লা প্রমুখ। পরে গর্জনখালীতে পানি প্রবাহ কম থাকায় তা বাড়িয়ে পানি চলাচলের ব্যবস্থা করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আগামী ২/৩ দিনের মধ্যে খাল খনন ও পানি নিষ্কশনের ব্যবস্থা করার আশ্বাস দেন উপজেলা চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন সিকদার। পরে এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা প্রশাসন ওই সরু খাল এলাকা পরিদর্শন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বিয়ের প্রলোভনে প্রতারণার ফাঁদে কলেজ ছাত্রী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রেমিক মোঃ সিরাজুল খানের-(২৭) বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ...

৪ জেলায় বন্যার পরিস্থিতি আরো অবনতির শঙ্কা

ডেস্ক রির্পোট : আগামী ২৪ ঘণ্টা মানিকগঞ্জ, রাজবাড়ী, ফরিদপুর ও মুন্সীগঞ্জে বন্যার ...