ব্রেকিং নিউজ
Home | সারা দেশ | কসবার ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা : থানায় শওকতের উপরও ছিল ৬টি মামলা

কসবার ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা : থানায় শওকতের উপরও ছিল ৬টি মামলা

মাজহারুল করিম অভি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দলীয় নেতা মোঃ শওকত হোসেন ওরফে জসিম-(৩৮) নামে ইউনিয়ন পরিষদের এক সদস্যকে (মেম্বার) কুপিয়ে হত্যা করা হয়। ওই এলাকার ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোশারফ হোসেন মোর্শেরদ সহ ১৮ জনকে আসামী করে গত শুক্রবার (৫ জুলাই) রাতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলায় এজহারভুক্ত আসামীদের মধ্যে একজন আটক করেছে পুলিশ।
সূত্রে জানা যায়, ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মোঃ শওকত হোসেন জসিমের বিরুদ্ধেও থানায় ছিল অভিযোগ ও মামলা। তিনি ইউনিয়নের বিভিন্ন অনিয়মের সাথে জড়িত ছিলেন। তাই স্থানীয়দের মধ্যে কৌতুহল কি নিয়ে শওকত-কে হত্যা করা হল? এলাকাবাসী ধারণা করছেন শওকতে বিভিন্ন অনিয়ম ও পূর্বের মামলার জেরে হয়ত তাকে হত্যা করা হয়েছে।
শওকত মেম্বার হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কসবা থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) ফারুক আহমেদ জানান, শওকত হত্যার ঘটনায় ১৮ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এরই মধ্যে অভিযান চালিয়ে এজহারভুক্ত একজন আসামীকে আটক করে আদালতের কাছে ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করার আবেদন চেয়েছি। বাকি পলাতক আসামীদের আটক করার জন্য অভিযান অব্যাহত থাকবে।
শওকতের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগের ব্যপারে জানতে চাইলে তিনি আরো বলেন, শওকতের বিরুদ্ধ মাদক-চুরি-মারামারি ও ডাকাতিসহ বিভিন্ন বিষয়ে থানায় ৬ টি মামলা রয়েছে। প্রত্যেকটিতে তিনি জামিন পেয়ে মুক্ত হয়েছে। হত্যাকান্ডের সাথে এসব মামলার কোনো সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
উল্লেখ্য, কসবায় মোঃ শওকত হোসেন ওরফে জসিম-(৩৮) নামে ইউনিয়ন পরিষদের এক সদস্যকে (মেম্বার) কুপিয়ে হত্যা করা হয়। গত শুক্রবার রাত আড়াইটায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। নিহত শওকত হোসেন উপজেলার মেহারি ইউনিয়ন পরিষদের এক নং ওয়ার্ডের মেম্বার এবং উপজেলার যমুনা গ্রামের গোলাম মোস্তফার ছেলে।
নিহতের কন্যা জিদনী আক্তার  আরো বলেন, “ আমার বাবা মারা যাওয়ার আগে হত্যাকারিদের নাম বলে গেছেন। পূর্ব বিরোধের জের ধরে তার বাবাকে খুন করা হয়েছে। তিনি পিতার হত্যাকারীদের বিচার দাবি করেন।
এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সহকারি পুলিশ সুপার (কসবা সার্কেল) আব্দুল করিমের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ধারণা করা হচ্ছে এলাকার আধিপত্য বিস্তার নিয়ে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। তিনি বলেন, তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

কালিয়াকৈরে বিএনপির মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল

কালিয়াকৈর(গাজীপুর)প্রতিনিধি : দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ...

রাণীনগরে পুলিশ সুপারের বিদায়ী সংবর্ধনা

মো: সাহাজুল ইসলাম,রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি : নওগাঁ জেলা পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন ...