Home | খেলাধূলা | কলকাতায় শচীন ফিরছেন ‘রাম’ হয়ে

কলকাতায় শচীন ফিরছেন ‘রাম’ হয়ে

Sahinস্পোর্টস ডেস্ক : হুগলী নদীর পূর্ব তীরে শুরু হয়েছে দীপাবলির উৎসব। ঘরে ঘরে জ্বলছে মঙ্গল প্রদীপ। হিন্দুধর্মাবলম্বীরা এই দীপাবলি উৎসবে আলো জ্বালান কারণ-এই দিনে ‘ভগবান রাম’ নির্বাসন শেষে অযোধ্যায় ফিরেছিলেন। আসছে ১১ নভেম্বর (রবিবার) রাতে নদীর তীরবর্তী কলকাতা শহরটিতে ফিরবেন ক্রিকেটের আরেক ‘ভগবান’ শচীন টেন্ডুলকর। তাই কলকাতায় এখনই শুরু হয়েছে শচীনের মঙ্গল কামনায় প্রদীপ জ্বলানোর প্রতিযোগিতা।

সাধারণত টেস্ট ম্যাচ শুরুর দু’দিন আগে সকালের বিমান ধরে শহরে পৌঁছান  টেন্ডুলকর। দলের অনুশীলন থাকে দুপুরে। ফলে সকালের বিমানে এলে কোনও সমস্যা হয় না। কিন্তু ইডেনে এ বার তাঁর শেষ টেস্ট খেলতে নামার তিন দিন আগে শহরে পৌঁছবেন তিনি। খেলা শুরু হবে ১৪ নভেম্বর। মুম্বাইয়ের বাড়িতে দীপাবলি পালনের শৌখিনতাও এখন দেখাচ্ছেন না শচীন। কারণ কলকাতায় অপেক্ষায় আছেন তার শতশত শিষ্য!

এই শহরে পা দিয়েই তিনি আবিষ্কার করবেন, স্টেডিয়াম একই, সেই পরিচিত ইডেন। কিন্তু শহরটা আরও উষ্ণ হয়ে পড়েছে। দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে শনিবার রাতে তাঁর শুভেচ্ছা কামনায় দেওয়া পূজার প্রসাদ আর বিশেষ প্রসাদী শাড়ির উপহারেই বিমানবন্দরে তাঁকে অভ্যর্থনা জানাবেন সিএবি কর্তা বিশ্বরূপ দে। বিমানবন্দরে নেমেই কালীবাড়ির প্রসাদ আর দেবীর পরিধেয় শাড়ি উপহার পাওয়ার অভিজ্ঞতা শচীনের বাইশ বছরের ইডেন-জীবনে আর কখনও হয়নি।

এর পর সোমবার প্র্যাকটিসে ঢুকে তিনি দেখবেন, ড্রেসিংরুমের দরজায় লেগে রয়েছে তাঁর এক সময়ের প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বীর অভিব্যক্তি। এমনিতে শহরের নানা হোর্ডিংয়ে বিজ্ঞাপনী সংস্থা শচীন সম্পর্কে ক্রিকেটারদের মন্তব্য লাগিয়েছে। ক্লাবহাউসের বাইরে খোলা ময়দানের ধারে একটা হোর্ডিংয়ে থাকবে শচীনকে নিয়ে অর্জুন রানাতুঙ্গার মন্তব্য, ‘শচীন ক্রিকেটের গয়না।’ কিন্তু ভারতীয় ড্রেসিংরুমের বাইরে যে মন্তব্যটা লাগছে, সেটাই সকল কলকাতা-বাসীর প্রাণের কথা, ‘আমি ঈশ্বরকে দেখেছি। ভারতের হয়ে উনি চার নম্বরে ব্যাট করতে আসেন।’ বক্তার নাম ম্যাথু হেডেন।

কলকাতা পৌর অঞ্চলের জনসংখ্যা ৫০ লাখের কিছু বেশি। তবে কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী জেলাগুলিতে বিস্তৃত কলকাতার মহানগরীয় অঞ্চলের জনসংখ্যা ১ কোটি ৪০ লক্ষের কাছাকাছি। এই জনসংখ্যার বিচারে এই কলকাতা ভারতের চতুর্থ বৃহত্তম শহর ও তৃতীয় বৃহত্তম মেট্রোপলিটন বা মহানগরীয় অঞ্চল। এই অঞ্চলটায় এখন কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে একটি কলরব-শচীন, শচীন, শচীন!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বিশ্বকাপে দেখা যেতে পারে চার টিনেজারকে

ক্রীড়া ডেস্ক : আগামী ৩০ মে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে শুরু হবে আইসিসি ...

জার্সি পরিববর্তন করেও পরাজয়ের লজ্জা এড়াতে পারলো না কোহলির দল

ক্রীড়া ডেস্ক : আবারও পরাজয়ের লজ্জায় অবনত মস্তকে মাঠ ছাড়তে হলো বিরাট কোহলির ...