Home | অর্থনীতি | এডিপি হবে ১ লাখ ৫৩ হাজার কোটি টাকার

এডিপি হবে ১ লাখ ৫৩ হাজার কোটি টাকার

স্টাফ রিপোর্টার :  আসন্ন ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) রোববার অনুষ্ঠেয় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) বৈঠকে অনুমোদন দেয়া হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
সরকারি সূত্র জানায়, এনইসি চেয়ারপারসন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠক শেষে পরিকল্পনা মন্ত্রী এ এইচ এম মুস্তফা কামাল সাংবাদিকদের ব্রিফ করবেন।
সূত্র জানায়, এ বছর এডিপির আকার বিগত অর্থ বছরের এডিপির আকারের চেয়ে ৩৮ শতাংশ অথবা ৪২ হাজার কোটি টাকা বেড়ে ১,৫৩,৩৩১ কোটি টাকা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরের এডিপির আকার ১,১০,৭০০ কোটি টাকা।
এডিপি’র ১,৫৩,৩৩১ কোটি টাকার মধ্যে ৯৬,৩৩১ কোটি টাকা পাওয়া যাবে রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে এবং বাকি টাকা পাওয়া যাবে প্রকল্প সহায়তা হিসাবে।
সরকার ২০১৮ অর্থ বছরের জন্য কর্পোরেশন ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন ব্যয়ের জন্য ১০,০০০ কোটি টাকা রাখবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এই বরাদ্দসহ এডিপির মোট আকার হবে ১,৬৩,৩৩১ কোটি টাকা। নতুন এডিপিতে পরিবহন, শিক্ষা, বিদ্যুৎ, পল্লী উন্নয়ন, স্বাস্থ্য এবং পানি সেক্টরে বরাদ্দ সর্বোচ্চ গুরুত্ব পাবে।
পরিকল্পনা কমিশন সূত্রে জানা গেছে, প্রস্তাবিত নতুন এডিপিতে ৯০ টি নতুন প্রকল্প অন্তর্ভুক্ত করা হবে। এতে মোট প্রকল্পের সংখ্যা দাঁড়াবে ১,১৯৫টি। এর বাইরে মোট ১,০৭৯ বিনিয়োগ প্রকল্প থাকবে। এরমধ্যে ১১২ কারিগরি সহায়তা প্রকল্পও থাকবে।
সরকারের অগ্রাধিকার ভিত্তিক প্রকল্পের মধ্যে পরিবহন সেক্টর রয়েছে। এই সেক্টরে এডিপির মোট বরাদ্দের ২৬.৭৭ শতাংশ বরাদ্দ থাকবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আগামী অর্থ বছরে মেগা প্রকল্প পদ্মা বহুমুখি সেতু প্রকল্পে ৫,৫২৪ কোটি টাকা বরাদ্দ থাকবে বলে ধারণা করা হচ্ছে এবং পদ্মা বহুমুখি সংযোগ প্রকল্পে ৭,৬৭৩ কোটি টাকা বরাদ্দ থাকবে। কর্ণফুলি নদীতে প্রস্তাবিত ট্যানেল নির্মাণ প্রকল্পে ১,৫৭৪ কোটি টাকা বরাদ্দ থাকবে। ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট উন্নয়ন প্রকল্পে ৩,৪২৫ কোটি টাকা বরাদ্দ থাকবে। বিগত অর্থ বছরগুলোর ন্যায় এ বছরও বিদ্যুৎ সেক্টরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৮,৮৫৮ কোটি টাকা এবং শিক্ষা সেক্টরে ১৬,৬৭৩ কোটি টাকা বরাদ্দ থাকবে।
আগামী অর্থ বছরে পানি সরবরাহ ও হাউজিং সেক্টরে ১৪,৯৪৯ কোটি টাকা বরাদ্দ পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ছাড়া বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সেক্টরে ১৪,৪৫০ কোটি টাকা, পল্লী উন্নয়ন ও পল্লী ইনস্টিটিউট সেক্টরে ১৩,১৫৪ কোটি টাকা, স্বাস্থ্য সেক্টরে ১০,২০১ কোটি টাকা এবং কৃষি সেক্টরে ৬,০০৬ কোটি টাকা বরাদ্দ পাবে।
এ ছাড়া রেলওয়ে মন্ত্রণালয় ১৩,০০১ কোটি টাকা, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ১০,৬০২ কোটি টাকা, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় ৯,৫১১ কোটি টাকা, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় ৮,৪০৩ কোটি টাকা, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ ৬,১৬৪ কোটি টাকা এবং পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় ৪,৬৭৫ কোটি টাকা বরাদ্দ পাবে। স্থানীয় সরকার বিভাগ সর্বোচ্চ ২১,৪৬৪ কোটি টাকা বরাদ্দ পাবে। এ ছাড়া বিদ্যুৎ বিভাগ ১৮,৮৪৫ কোটি টাকা এবং সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগ ১৬,৮২০ কোটি টাকা বরাদ্দ পাবে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে চন্দ্রিকা কুমারাতুঙ্গার সৌজন্য সাক্ষাৎ

স্টাফ রিপোর্টার :  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন সফররত শ্রীলঙ্কার সাবেক ...

শুরুতেই রনকিকে ফেরালেন মোস্তাফিজ

স্পোর্টস ডেস্ক:  বল হাতে দারুণ ছন্দেই আছেন মোস্তাফিজুর রহমান। ত্রিদেশীয় সিরিজের শেষ ...