Home | সারা দেশ | ইয়াসমিন ট্রাজেডী দিবস উপলক্ষে দিনাজপুরে মানববন্ধন ও আলোচনা সভা

ইয়াসমিন ট্রাজেডী দিবস উপলক্ষে দিনাজপুরে মানববন্ধন ও আলোচনা সভা

শাহ্ আলম শাহী,দিনাজপুর থেকেঃ  ইয়াসমিন ট্রাজেডি দিবস ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস  উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।২৪ আগস্ট রোবাবর দিনাজপুর প্রেসক্লাব সম্মুখ সড়কে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখা আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচী শেষে আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, দিনাজপুরের মেয়ে ইয়াসমিনকে পুলিশবেশে জনগণের রক্ষকরা ধর্ষণ ও হত্যা করে। এই বর্বরোচিত হত্যার প্রতিবাদে দিনাজপুরের মানুষ বিক্ষোভ মিছিল বের করলে পুলিশ সেখানেও গুলি চালায় ফলে ৬ জন নিহত হয়। ইয়াসমিন হত্যার প্রতিবাদ করতে গিয়ে যারা সেদিন নিহত হয়েছে। তাদের প্রতি গভীর সমবেদনা ব্যক্ত করে বলেন, এদেশের নারী সমাজ সারাজীবন শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে। আগামীতে নারী সমাজের প্রতি সকল অন্যায় অত্যাচার নিপীড়নের বিরুদ্ধে মহিলা পরিষদ সামনে সারিতে থাকবে। বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সহ-সভাপতি হোসনে আরা’র সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সহ-সাধারণ সম্পাদক মনোয়ারা সানু, অর্থ সম্পাদক রতœা মিত্র, আন্দোলণ সম্পাদক সুমিত্রা বেসর, জেলা কমিটির সদস্য মিতালী রায়, সুফিয়া বেগম, আয়শা বেগম ও গোলেনুর বেগম। অনুষ্ঠান পরিচালনা করে সংগঠন উপ-পরিষদের সম্পাদক রুবিনা আকতার।অন্যদিকে দিবসটি উপলক্ষে দিনাজপুর পল্লীশ্রীর উদ্যোগে এবং অক্সফ্যাম এর সহযোগিতায় নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষ্যে আলোচনা সভায় পল্লীশ্রীর ম্যানেজার মোঃ কামাল এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, ১৯৯৫ সালের ২৪ আগষ্ট পুলিশের হাতে নৃশ ংস ও বর্বরোতার শিকার হয়ে প্রাণ হারায় ইয়াসমিন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দিনাজপুর শহরে এক গণ আন্দোলণ শুরু হয় এবং সর্বস্তরের মানুষ প্রতিবাদে বেড়িয়ে পরে রাজপথে। দিনাজপুর শহরের কারফিউ ভঙ্গ করে মিছিলের মধ্য দিয়ে আন্দোলন পৌছে যায়  এক ভয়াবহ পর্যায়ে। পরবর্তীতে এই আন্দোলনের আলোচনা, পর্যালোচনার ফলে ২৪ আগষ্টকে নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়। যদিও ইয়াসমিন হত্যার প্রতিবাদে সেদিন উত্তাল হয়েছিল দিনাজপুরসহ সারাদেশ। এর পর আজও প্রতিদিন প্রতিমুহুর্তে ঘটে যাচ্ছে পৈশাচিকতা ও বর্বরোতার নারী নির্যাতনের অসংখ্য ঘটনা। ব্যক্তি পর্যায় থেকে যদি পরিবর্তন না আসে তবে এই অবস্থার কখনও পরিবর্তণ হবে না। তাই দিনটিতে সারাদেশে সর্বজন সচেতনতার জন্য এবং নারী নির্যাতন মুক্ত দেশ গড়ার অঙ্গিকার নিয়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান দিবসটি পালণ করে থাকে। বক্তারা বলেন, এই দিনটিকে শুধু দিবসের মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে আমরা নিজে এবং নিজের পরিবার থেকে সচেতনতা শুরু করি, যা আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে নির্যাতনমুক্ত মেধাবী ও সমৃদ্ধশীল জাতি হিসেবে স্বীকৃতি দেবে।অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন পল­ীশ্রী ম্যানেজার মোঃ সেলিম রেজা, সদস্য সিদ্দিকা বেগম, আড্ডা দল এর সদস্য লায়লা বেগমসহ পল­ীশ্রীর কর্ম এলাকার বিভিন্ন প্রতিনিধিবৃন্দ, পল­ীশ্রীর বিভিন্ন দলের সদস্য ও কর্মীবৃন্দ। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন পল­ীশ্রীর এইচআর ইনচার্জ শাহরিয়ার পারভেজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আত্রাইয়ে পাথরের মূর্তি উদ্ধার

আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁর আত্রাই উপজেলার মনিয়ারী ইউনিয়নের দিঘীরপাড় গ্রাম থেকে পাথরের ...

আগৈলঝাড়ায় জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

অপূর্ব লাল সরকার, আগৈলঝাড়া (বরিশাল) থেকে : বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যেগে ...