ব্রেকিং নিউজ
Home | আন্তর্জাতিক | আসনের চেয়ে ভর্তি বেশি ১৮০০ ‘নির্বাচনী খরচা’ ওঠানোর ‘ভর্তি বাণিজ্যে’ আইডিয়াল স্কুল!

আসনের চেয়ে ভর্তি বেশি ১৮০০ ‘নির্বাচনী খরচা’ ওঠানোর ‘ভর্তি বাণিজ্যে’ আইডিয়াল স্কুল!

স্টাফ রিপোর্টার, ৬ মার্চ, বিডিটুডে ২৪ডটকম : জাতীয় সংসদের শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি তিনি, সরকারের শেষ সময়ে মন্ত্রিত্বের ডাক প্রত্যাখ্যান করেও আলোচিত ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এমপি। মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ তার নির্বাচনী এলাকায়। পদাধিকার বলে এর প্রধান কর্তাব্যক্তিও তিনি। আর সেখানেই ঘটছে শিক্ষা খাতের অন্যতম বড় অনিয়ম ও দুর্নীতি। গুঞ্জন উঠেছে, আগামী নির্বাচনের খরচ ওঠানোর জন্যই এই ভর্তি বাণিজ্য।

নির্ধারিত আসনের চেয়ে অতিরিক্ত এক হাজার ৮০০ শিক্ষার্থী ভর্তি করানোর অভিযোগ উঠেছে রাজধানীর মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের বিরুদ্ধে। চলতি শিক্ষাবর্ষে বিজ্ঞাপিত আসনের বাইরে টাকা এবং তদবিরের মাধ্যমে এসব শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয় বলে অভিযোগ করেছেন শিক্ষার্থীদের অভিভাবক ও শিক্ষকরা।
অভিযোগের তীর রয়েছে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাসদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতা এবং শিক্ষা ও পুলিশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে। তাদের তদবিরের চাপে নীতিমালা ভঙ্গ করে এসব শিক্ষার্থী ভর্তি করানো হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র নিশ্চিত করেছে।
অতিরিক্ত ভর্তি করা শিক্ষার্থীর সংখ্যা উল্লেখ করে এ বিষয়ে জানতে চাইলে মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. শাহান আরা বেগম বলেন, ‘এরকমই হবে।’ এর বেশি কোনো মন্তব্য করতে তিনি রাজি হননি।
এ বিষয়ে ঢাকা মহানগরী ভর্তি তদারকি ও পরিবীক্ষণ কমিটির আহ্বায়ক মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ফাহিমা খাতুন বলেন, ‘নিয়মানুযায়ী শূন্য আসনের চেয়ে কোনোভাবেই অতিরিক্ত শিক্ষার্থী ভর্তি করানো উচিত নয়। আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।
জানা গেছে, স্কুল কর্তৃপক্ষ ভর্তি হওয়া অতিরিক্ত শিক্ষার্থীর সংখ্যা লুকানোর চেষ্টা করছেন। একজন শিক্ষক বলেন, ‘স্কুল খুললে ভর্তি করা অতিরিক্ত শিক্ষার্থীর প্রকৃত সংখ্যা জানা যাবে। চলমান এসএসসি পরীক্ষার কারণে স্কুলের ক্লাস বন্ধ রয়েছে। আগামী ১২ মার্চ ক্লাস শুরু হবে।’
শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সূত্রমতে, গত শিক্ষাবর্ষেও এই প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন শ্রেণীতে এক হাজার ৫৫০ জন অতিরিক্ত শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়েছিল বলে খোদ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরের (ডিআইএ) এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।
সূত্র মতে, গত ডিসেম্বরের দেয়া বিজ্ঞাপন অনুযায়ী প্রায় দেড় হাজার শিক্ষার্থী ভর্তি করে ক্লাসও শুরু হয়েছে। অথচ এর দেড়মাস পর গত কয়েকদিনে স্লিপের মাধ্যমে নতুন করে এসব অতিরিক্ত শিক্ষার্থী ভর্তি করানো হয়। এর মধ্যে মূল শাখা মতিঝিলেই সবচেয়ে বেশি শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়েছে। বনশ্রী শাখায় সাড়ে সাতশ’র মতো শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়েছে। মূল শাখায় কেবল ইংরেজি মাধ্যমেই প্রায় সাড়ে ৫০০ শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী ভর্তি করানো হয় বলে সূত্র নিশ্চিত করেছে। তবে প্রকৃত সংখ্যা কোনোভাবেই বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানাতে চাচ্ছে না।
অভিভাবকদের অভিযোগ, পরিচালনা কমিটির সদস্যদের কেউ কেউ টাকার বিনিময়ে শিক্ষার্থী ভর্তি করিয়েছেন। প্রতি শিক্ষার্থীর কাছ থেকে তিন থেকে চার লাখ টাকা পর্যন্ত নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে সন্তানের ক্ষতির আশঙ্কায় ওই অভিভাবকরা নাম প্রকাশ করতে রাজি হননি।
শুধু ক্ষমতাসীন দলের নেতাই নন, ওই এলাকায় বাসা বিএনপির এক নামকরা নেতাও ভর্তিতে তদবির করেন ও তার সুপারিশ অনুযায়ী বেশকিছু শিক্ষার্থী ভর্তিও করা হয়েছে বলে বিদ্যালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে। এছাড়া শিক্ষা ও পুলিশ কর্মকর্তাদের কেউ কেউ তদবিরে শিক্ষার্থী ভর্তি করিয়েছেন বলেও জানা গেছে। বিদ্যালয়গুলোতে আগে অতিরিক্ত শিক্ষার্থী ভর্তির অভিযোগ ওঠায় এবারের নীতিমালায় স্পষ্ট করে বলে দেওয়া হয়, প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা নিজ প্রতিষ্ঠানের শূন্য আসন সংখ্যা উল্লেখ করে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রচার করবেন। অর্থাৎ এই শূন্য আসনের বাইরে শিক্ষার্থী ভর্তি করা যাবে না। কিন্তু আইডিয়াল স্কুল কর্তৃপক্ষ গোপনে নীতিমালা ভঙ্গ করে অতিরিক্ত শিক্ষার্থী ভর্তি করেছে। বিদ্যালয়ের সূত্র মতে, এখনো কিছু কিছু ভর্তি করানো হচ্ছে।
প্রসঙ্গত, গত ১৩ নভেম্বর জারি করা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নীতিমালায় বলা হয়, নীতিমালার নির্দেশের কোনোরূপ ব্যত্যয় ঘটানো হলে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে পাঠদানের অনুমতি বা শিক্ষাগত স্বীকৃতি বাতিলসহ প্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্তি বাতিল করা হবে।
x

Check Also

‘গ্রেটার সিলেট এসোসিয়েশন ইন স্পেন’ নির্বাচনে মুজাক্কির – সেলিম প্যানেল বিজয়ী

জিয়াউল হক জুমন, স্পেন প্রতিনিধিঃ সিলেট বিভাগের চারটি জেলা নিয়ে গঠিত গ্রেটার ...

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভা

আনোয়ার এইচ খান ফাহিম ইউরোপীয় ব্যুরো প্রধান, পর্তুগালঃ পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহরিয়ার ...