ব্রেকিং নিউজ
Home | ফটো সংবাদ | আপিলের শুনানির আদেশ নিয়ে অধীর আগ্রহে গাজীপুরের ভোটাররা

আপিলের শুনানির আদেশ নিয়ে অধীর আগ্রহে গাজীপুরের ভোটাররা

স্টাফ রিপোর্টার : গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে তিন মাসের স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির দুই প্রার্থীর আপিলের শুনানির পর কী আদেশ আসে, তা নিয়ে অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় গাজীপুরের ভোটাররা। তবে স্থগিতাদেশ উঠে গেলেও রোজার আগে ভোট হবে কি না, এ নিয়েও আছে সংশয়।

৬ মে হাইকোর্টের আদেশে ভোট স্থগিত হয়ে যাওয়ার কারণে তিন দিন ধরে ভোটের সব প্রস্তুতি প্রার্থীদের সব প্রচার বন্ধ গাজীপুরে। এখন যদি স্থগিতাদেশ উঠেও যায়, তাহলে এই তিন দিন যে প্রচার চালানো গেল না, সেই বিষয়টির কী হবে, এটাও দেখার বিষয়।

চলতি মাসের মাঝামাঝি থেকে শুরু হচ্ছে রোজা। সেটা ১৬ মে থেকেও হতে পারে। আর নির্বাচন কমিশন রোজায় ভোট করতে চায় না বলে রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট সিটি করপোরেশনের ভোট ঈদের পরে হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচিন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা।

জানতে চাইলে নির্বাচন কমিশনের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা রোজায় ভোট করতে চাইনি। এখন আদালত কী নির্দেশ দেয়, সেটা আগে দেখে নেই।’

১৫ মে ভোটের নয় দিন আগে গত ৬ মে ভোটের সাভারের শিমুলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এ বি এম আজহারুল ইসলাম সুরুজের রিট আবেদনে ভোট স্থগিত হওয়ার পর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে আপিলের কথা প্রথম বলেছিলেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম।

সেদিনই জাহাঙ্গীর ঢাকায় ছুটে এসে দলের শীর্ষ নেতাদের পাশাপাশি কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে। তার আওয়ামী লীগ প্রধান তাকে আদালতে যাওয়ার পরামর্শ দিলে পরদিন তিনি আপিল করতে উচ্চ আদালতে আসেন।

তবে এরই মধ্যে সোমবার (৭ মে) দুপুরে আপিল করেন বিএনপির প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার। একই দিন আপিলের সব কাজগপত্র তৈরি হলেও পরদিন মঙ্গলবার তা জমা দেয়া হয়। আর চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী দুই পক্ষের কথা শুনে বিষয়টি বুধবার শুনানির জন্য আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন।

বুধবার আপিল বিভাগে আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ মামলা রয়েছে। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে জামিন দিয়ে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের যে শুনানি মঙ্গলবার শুরু হয়েছে, সেটি চলবে বুধবারও। এর মধ্যে গাজীপুরের স্থগিতাদেশের শুনানি করে এ বিষয়ে কী আদেশ দেয়া হয় সেটি সে বিষয়েও আলোচনা আছে।

এরই মধ্যে রিটকারী সুরুজের আবেদনে তথ্য গোপন, ভোট স্থগিতে হাইকোর্টের আদেশে সংবিধান লংঘনের মতো অভিযোগ উঠেছে। সংবিধান অনুযায়ী তফসিলের পর আদালত নির্বাচন বিষয়ে কোনো আদেশ দিলে তার আগে নির্বাচন কমিশনকে নোটিশ দিতে হয়। কিন্তু সে নোটিশ ছাড়া বলতে গেলে একতরফা শুনানি শেষে এসেছে উচ্চ আদালতের আদেশ।

আবার রিটকারী সুরুজের দাবিও দুর্বল। তিনি তার ইউনিয়নের যে ছয় মৌজা গাজীপুর সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্তি নিয়ে গত পাঁচ বছর ধরে লড়াই করছেন, সেটি স্থানীয় সরকার বিভাগ আইনগতভাবেই ফয়সালা করেছে বলেই খবর এসেছে গণমাধ্যমে।

তা ছাড়া ভোটের তফসিল ঘোষণার আগে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে জটিলতা না থাকার বিষয়টি নিয়ে নিশ্চয়তা পাওয়া গিয়েছিল বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম এবং কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ্।

গাজীপুরের বিএনপির প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকারের আইনজীবী জয়নুল আবেদিন ফারুক এবং মাহবুব উদ্দিন খোকন আশা করছেন, তারা আপিল বিভাগ থেকে দ্রুত ফয়সালা পাবেন।

আর জাহাঙ্গীর আলম বলছেন, তিনি যে কোনো মূল্যে ১৫ মে ভোট চান। জনগণ তার অধিকার প্রয়োগে মুখিয়ে আছে জানিয়ে তিনি এ নিয়ে রিট করারও সমালোচনা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

সকাল আটটায় জাতীয় ঈদগাহে ঈদুল আজহার প্রধান জামাত

স্টাফ রির্পোটার : আগামী ২২ আগস্ট বুধবার সকাল আটটায় জাতীয় ঈদগাহে ঈদুল ...

মহাদেবপুরে ট্রাকের ধাক্কায় মাদ্রাসাছাত্র নিহত ১

নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার মগলিশপুর নামক স্থানে ট্রাকের ধাক্কায় মো. আতিক ...