ব্রেকিং নিউজ
Home | বিবিধ | আইন অপরাধ | আদালত অবমাননার দায়ে চ্যানেল২৪এর শুনানি ৩০ এপ্রিল

আদালত অবমাননার দায়ে চ্যানেল২৪এর শুনানি ৩০ এপ্রিল

channel24স্টাফ রিপোর্টার : আদালত অবমাননার জন্য চ্যানেল২৪ এর বিরুদ্ধে জারি করা রুলের পরবর্তী শুনানির জন্য ৩০শে এপ্রিল দিন ধার্য করেছে আদালত। বিবাদীদের সময় আবেদনের প্রেক্ষিতে রবিবার চেয়ারম্যান বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বে গঠিত তিন সদস্যের গঠিত ট্রাইব্যুনাল-১ এ দিন ধার্য করেন।

 

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের বিচারাধীন মামলার বিষয়ে মন্তব্য করায় আদালত অবমাননার অভিযোগে রুল জারি করা হয় বেসরকারী টিভি চ্যানেল ২৪ এবং সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ ও জাফর উল্লাহ’র বিরুদ্ধে এ রুল জারি করা হয়।

সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ আদালতে দাখিল করা জবাবের শুনানির জন্য তিন মাস সময় প্রার্থনা করলে ট্রাইব্যুনাল এ দিন নির্ধারণ করেন।

গত ৬ নভেম্বর চ্যানেল ২৪ এর বিরুদ্ধে আনিত আদালত অবমাননার জবাব দাখিল করেছেন তাদের আইনজীবী।

 

এছাড়া গত ১০ অক্টোবর ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী ট্রাইব্যুনালে তার লিখিত জবাব দাখিল করেন এবং তিনি নিজে শুনানি করতে আবেদন করেন। গত ২৬ সেপ্টেম্বর গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহকে আদালতে তলব করে ট্রাইব্যুনাল। তাছাড়া চ্যানেল ২৪ এর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ এনে ব্যাখ্যা দিতে আদেশ দেয়া হয়।

 

গত ২৪ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার ট্রাইব্যুনালের রেজিস্ট্রারের কার্যালয় প্রসিকিউশনের পক্ষ থেকে মাহফুজ উল্লাহ, জাফর উল্লাহ, বেসরকারী চ্যানেল ২৪ কর্তৃপক্ষসহ ৮জনকে বিবাদী করে অভিযোগ দাখিল করা হয়। প্রসিকিউটর জেয়াদ আল মালুম, তুরিন আফরোজ, সুলতান মাহমুদ সীমন, তাপস কান্তি বল,সাবিনা ইয়াসমিন খান মুন্নি ও রেজিয়া সুলতানা চমন এ আবেদন দাখিল করেন।

 

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল আইন ১৯৭৩ এর ১১(৪)ধারা মোতাবেক কেন তাদের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ আনা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারির আবেদন করা হয়। একই সঙ্গে তাদের অভিযুক্ত করে এক বছরের কারাদণ্ড অথবা জরিমানা করার আবেদন করা হয়।

 

আবেদনে অন্যান্য বিবাদীরা হলেন, চ্যানেল ২৪ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, নির্বাহী পরিচালক, হেড অব প্রোগ্রাম, মুক্তবাক নামক অনুষ্ঠানের প্রযোজক এবং সঞ্চালক মাহমুদুর রহমান মান্না।

 

প্রসিকিউশনের অভিযোগে বলা হয়, গত ১৮ সেপ্টেম্বর চ্যানেলে ২৪ এর রাত এগারটার ‘মুক্তবাক’ নামক টকশো’তে ট্রাইব্যুনালের বিচার বিষয়ে এই মন্তব্য করেন। টকশো’তে ডা.জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ‘বিচারপতি শামীম হাসনাইন সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর পক্ষে সাক্ষ্য দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু কেন তাকে দেয়া হয়নি। তাহলে কি বিচারের বাণী নিভৃতে কাঁদবে না?’

 

এছাড়া টকশোতে সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরী সাফাই সাক্ষীদের নিয়ে মন্তব্য করারও অভিযোগ করে প্রসিকিউশন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

অসাধু ব্যবসায়ীদের জন্য পেঁয়াজের দাম কমছে না :ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রির্পোটার :  ক্রয়ক্ষমতা বেড়ে যাওয়ায় চাল ও পেঁয়াজসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম ...

আজ বিকাল চারটায় আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সভা

স্টাফ রির্পোটার : বর্তমান ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সভা আজ ...