Home | সারা দেশ | আজ সেই ৩ মার্চ -জামায়াত শিবিরের সহিংসতায় বগুড়ায় নিহত হয়েছিল ১০ জন

আজ সেই ৩ মার্চ -জামায়াত শিবিরের সহিংসতায় বগুড়ায় নিহত হয়েছিল ১০ জন

Bograমো: শামছুল আলম লিটন ব্যুরো অফিস বিডিটুডে২৪ডটকম: আজ সেই ভয়াল ৩ মার্চ। ২০১৩ সালের ৩ মার্চ রোববার ভোর রাত থেকে জামায়াত শিবিরের সহিংসতায় বগুড়ায় নিহত হয় ১০ জন। হামলা চালিয়ে আগুন লাগানো হয় জেলার ৬টি থানা এবং কয়েকটি পুলিশ ফাড়িতে । আহত হয় কয়েকশ পুলিশ সদসস্য। ধ্বংস হয় সরকারের প্রায় ১০ কোটি টাকার সম্পদ। জামায়াত শিবিরের সেই নৃশংসতা নিয়ে জানাচ্ছেন আমাদের বগুড়া ব্যুরো চীফ ।রোববার। ভোর রাত সাড়ে তিনটে। বগুড়া জেলার কয়েকটি উপজেলার মসজিদ থেকে ভেসে আসে চাঁদে সাঈদীর ছবি দেখা যাচ্ছে। মুহুর্তে জামায়াতের প্রশিতি কর্মীদের মসজিদের মাইকে প্ররোচনায় সাধারন মানুষের একটি অংশ নেমে আসে রাস্তায়। মহিলা আর শিশুদের মানব ঢাল হিসেবে ব্যবহার করে জামায়াত শিবির কর্মীরা  বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান  লুটতরাজ শুরু করে। অস্ত্রাগার লুটের উদ্দেশ্যে হামলা চালানো হয় থানা গুলোতে। জামায়াতের সহিংসতায় মারা যায় ১০ জন নিরীহ নারী পুরুষ। নিহতের পরিবেরারা এখনও সেই দুঃসহ স্মৃতি বয়ে বেড়াচ্ছে। অনুনোচনাও কম নয় তাদের ।জামায়াতের অপর একটি গ্রুপ গুজবকে কেন্দ্র করে বগুড় পরিকল্পিত ভাবে হামলা চালায় পুলিশের উপর। এসময় জামায়াত কর্মীরা শহরের বিভিন্ন জায়গায় ব্যাপক ধ্বংশ যংগ চালায়। তাদের  আক্রমনের হাত থেকে সাংবাদিকের বাড়ী, রাজনৈতক কার্যালয়, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, অফিস কিছুই রা পায়নি। বগুড়া – ১ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নানের বাড়ি, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মমতাজ উদ্দিনের বাড়ী, প্রবীন সাংবাদিক আমাল­াহ খানের বাড়ীতে হামলা চালিয়ে লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করেছে জামায়াত সমর্থকরা। জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও এফবিসিসিআই এর ডাইরেক্টর সিআইপি মমতাজ উদ্দিনের বাড়ী লুটপাট করেছে এবং তার দুইটি গাড়ী পুড়িয়ে দিয়েছে। কোন মতে প্রাণে বেঁচেছেন তিনি।বগুড়া শহরের ৪টি পুলিশ ফাড়ি একবারে পুড়িয়ে দিয়েছে জামায়াত শিবির। আক্রমন করেছে জেলার সবকটি ফাড়িতে। এদিকে সংঘর্ষ চলাকালে বগুড়া ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনে হামলা চালায় জামায়াত শিবির। তারা বগুড়া রেল ওয়ে ষ্টেশন এলাকায় ব্যাপক ভাংচুর চালায়। নন্দীগ্রাম উপজেলার সবকটি সরবারী অফিস জ্বালিয়ে দেয়া হয়। এসব নিয়ে মামলা হয়েছে ৫৬টি। প্রায় তিন হাজার ব্যক্তির বিরুদ্ধে প্রাথমিক অফিযোগ প্রমান হয়েছে। গ্রেপ্তার হয়েছে ৮শরও বেশি। মামলাগুলোর অগ্রতি নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করছে স্থানীয় প্রশাসনও।নিছক একটি গুজব কতটুকু ভয়াবহ হতে পারে ৩রা মার্চ বগুড়া তার প্রকৃত উদাহরন। ধর্মকে পুজি করে নৃশংসতার জাজ্বল্যমান দৃষ্টান্ত বগুড়ার ৩রা মার্চ। ধর্মের ফায়দা হয়ত একটি মহল তুলেছে কিন্তু সেই দুঃসহ স্মৃতি বয়ে বেড়াচ্ছে বগুড়ার হাজারো পরিবার।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

খেতে চাওয়ায় শতবর্ষী মাকে জখম করল পাষণ্ড ছেলে

স্টাফ রিপোর্টার :  ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার ডাঙ্গীপাড়া ইউনিয়নে খেতে চাওয়ায় শত বছর ...

পুলিশকে মারধর করে ছাত্রলীগ পরিচয় দিল ৩ কলেজছাত্র

স্টাফ রিপোর্টার :  বরিশালে ট্রাফিক পুলিশ কর্মকর্তাকে মারধরের অভিযোগে ছাত্রলীগ নামধারী ৩ ...