ব্রেকিং নিউজ
Home | ব্রেকিং নিউজ | আজ ও উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি গোপালগঞ্জের গ্রিসনগর দ্বীপচরে

আজ ও উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি গোপালগঞ্জের গ্রিসনগর দ্বীপচরে

সজল সরকার : অনেকে এই দ্বীপচরের নাম ও জানে না বা নামই শোনেনি কখনো। এটার নাম গ্রীসনগর দ্বীপচর। কেউ বলেন দুর্গম দ্বীপচর – যে নামই হোকনা কেন,তবে এটি একটি দ্বীপচরই বলা যায়। এ চরের অবস্থান গোপালগঞ্জ সদর উপজেলাধীন গোবরা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডে, খালেকের বাজার (নিলফা বাজার) সোজাসুজি মধুমতি নদীর ওপারে, বাগেরহাট জেলার মোল্লাহাটের পাশে।

গ্রীসনগর দ্বীপচরের ভৌগলিক অবস্থানটা জটিল, কেননা, অত্র অঞ্চলের মধুমতির নদীর ওপারের বসতি সাধারনত বাগেরহাট কিংবা পিরোজপুর জেলার মধ্যে, অথচ এই দ্বীপচরটি পড়েছে গোপালগঞ্জের মধ্যে। যার ফলে, সদর উপজেলাধীন গোবরা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের বৈধ বাসিন্দা হওয়া সত্বেও এই জনপদের বাসিন্দাদের বাস করতে হচ্ছে অনেকটা রোহিঙ্গাদের মতো।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, গোবরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সফিকুর রহমান চৌধূরী (টুটুল) দ্বীপচরের বাসিন্দাদের কথা গুলো শুনছেন মন দিয়ে, তাদের আক্ষেপ, শুধুমাত্র ভোটের সময় ছাড়া কোনো মেম্বার বা চেয়ারম্যান তাদের কোনো খবর নেয়না, তাদের কোনো সমস্যা আছে কিনা, কেউ জানতেও চায়না।

দ্বীপচরের বাসিন্দা মোলাকাত হোসেন (৩৬) বলেন, কেউই আমাদের খোঁজ নেয়না, আজ চেয়ারম্যান এসেছেন, আমাদের সাথে খোলামেলা কথা বলেছেন, সমস্যা গুলো শুনেছেন, সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন, আমরা বেশি কিছু চাইনা, গোবরা ইউনিয়নের স্থায়ী বাসিন্দা আমরা, খাবার পানি, স্বাস্থ্যকর পায়খানা ও রাস্তাঘাটের উন্নয়ন করলেই আমরা খুশি, এসব দাবিই আমরা চেয়ারম্যানের নিকট করেছি।

গোবরা ইউপি চেয়ারম্যানও গ্রীসনগর দ্বীপচর বাসীর কথা স্বীকার করে বলেন, এই দ্বীপচরে রয়েছে ১৩টি পরিবার, মোট জনসংখ্যা ৬৫ থেকে ৭০ জন,মূল পেশা কৃষি, নারী পুরুষ মিলিয়ে ভোটার আছে ৪২টি, মেম্বার বা চেয়ারম্যান নিয়ে তারা যে আক্ষেপ করেছে, তা শতভাগ সঠিক, ভোট ছাড়া কেউ তাদের খবর নেয়না। এই ১৩টি পরিবার যেসব জমিজমা ভোগ করছেন, শুধু বিআরএস পর্চায় তাদের নাম রয়েছে, দলিলে তাদের নাম নেই।
তিনি আরো বলেন, তাদের সাথে কথা বলার পর তাদের কিছু সমস্যা সম্পর্কে জানতে পেরেছি, খাবারের বিশুদ্ধ পানি ও স্যানিটেশন সমস্যা প্রকট, তাছাড়া কাঁচা রাস্তা রয়েছে বেশ খানিক। আজ এই চরের বাসিন্দাদের মধ্যে ২জনকে আমি দায়িত্ব দিয়েছি, প্রতি মাসে নিয়মিত ইউনিয়ন পরিষদে আসার জন্য, তাদের যাতায়াত খরচ আমি দেবো, সমস্যা গুলো ধীরে ধীরে সমাধানের উদ্যোগ নেবো, পাশাপাশি তাদের জীবনমানের উন্নয়নের জন্য যা কিছু প্রয়োজন, তাই করা হবে।

দ্বীপচর বাসিন্দাদের নিজস্ব উদ্যোগে নির্মিতব্য একটি মসজিদ ও মাদ্রাসায় গোবরা ইউপি চেয়ারম্যান সফিকুর রহমান চৌধূরী (টুটুল) নিজস্ব অর্থায়নে এক হাজার ইট প্রদান করেন এবং চরের ১৩টি পরিবার ও মাদ্রাসায় কম্বল বিতরণ করেন।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাদেকুর রহমান খান বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে কেউই উন্নয়নের ছোঁয়া থেকে বঞ্চিত হবেনা, সকল জনগোষ্ঠীর উন্নয়ন নিশ্চিত করা হবে, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলাধীন গোবরা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের বিচ্ছিন্ন অংশ গ্রীস নগর দ্বীপচরের মানুষের সমস্যার কথা জানতে পেরেছি, তাদের বিশুদ্ধ পানি ও স্যানিটেশন সমস্যার পাশাপাশি রাস্তাঘাটের সমস্যাও রয়েছে, এসব সমস্যা সমাধানের জন্য খুব দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মদনে ক্ষুদ্র নৃ—গোষ্ঠীর মধ্যে ভেড়া ও অন্যান্য উপকরণ বিতরণ

সুদর্শন আচার্য্য, মদন, নেত্রকোণা ঃ সমতল ভূমিতে বসবাসরত অনগ্রসর ক্ষুদ্র নৃ—গোষ্ঠীর মাঝে ...

What Is Cmmi? A Model For Optimizing Development Processes

Содержание Managed Processes Maturity Model Structure Do You Want To Implement The ...