Home | সারা দেশ | আগৈলঝাড়ায় বহিস্কারের পরেও দলীয় বিদ্রোহীরা শক্ত অবস্থানে : মাঠে ব্যাপক প্রচারণা

আগৈলঝাড়ায় বহিস্কারের পরেও দলীয় বিদ্রোহীরা শক্ত অবস্থানে : মাঠে ব্যাপক প্রচারণা

Agailjhara Map..অপূর্ব লাল সরকার, আগৈলঝাড়া (বরিশাল) থেকে : বরিশালের আগৈলঝাড়া আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে সম্পন্ন হওয়া নিয়ে আওয়ামীলীগ বহিস্কৃত নেতাসহ বিএনপি প্রার্থীরা শঙ্কা প্রকাশ করছেন। দলথেকে বহিস্কৃত নেতারা সংবাদপত্রে তাদের বহিস্কারের খবর দেখে সাংবাদিকদের কাছে নির্বাচন নিয়ে তাদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। দলের উপজেলা সাধারণ সম্পাদক ও বহিস্কৃত বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী যতীন্দ্র নাথ মিস্ত্রী সাংবাদিকদের কাছে তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, দল বহিস্কারের ব্যাপারে আমাকে লিখিতভাবে কিছুই জানায়নি। মানুষের সাথে আছি বলে দল আমাকে এমন শাস্তি দিলে সাধারণ জনগণ এই বহিস্কারের জবাব দেবে। মিডিয়া নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করলে জনগণের তথা আমাদের দাবি প্রতিষ্ঠিত হবে। এখানে সুষ্ঠু ভোট নেবার জন্য প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।
দলের অপর বিদ্রোহী বহিস্কৃত চেয়ারম্যান প্রার্থী গিয়াস খান তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, প্রার্থী নির্বাচকরা দলের দীর্ঘদিনের ত্যাগী নেতাদের বঞ্চিত করেছে। তিনি বলেন, পূর্বে উপজেলা কমিটির সদস্য ছিলাম, একবছরেও কমিটি পূর্ণাঙ্গ না হওয়ায় এখন তাও নেই। তবে দল কাকে বহিস্কার করেছে? আমাদের মত কর্মীদের বহিস্কার করে আওয়ামীলীগ যদি শুদ্ধি অভিযান চালিয়ে দলকে নিস্কণ্টক করতে পারে তবে সে বহিস্কারকে আমি সাধুবাদ জানাই। দল অবমূল্যায়ন করায় নির্বাচনী মাঠে রয়েছি। বিভিন্নস্থানে জনগণ আমাকে প্রশ্ন করে বলেন ‘জনগন তাদের নিজেদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারবেন তো?’ জনগণের এমন শঙ্কা থেকে গিয়াস খান নিজেও সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট অনুষ্ঠিত হওয়া নিয়ে শঙ্কিত বলে জানান। যদি সুষ্ঠু নির্বাচন হয় তাহলে তিনিই বিজয়ী হবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।
বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও দলের বিদ্রোহী প্রার্থী শেফালী রানী সরকার বলেন, দলের জন্য অর্থ, সম্পদ, ইজ্জৎ হারিয়েছি। তার বিনিময়ে দল মনোনয়ন দেয়ায় গত নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছিলাম। নির্বাচিত হয়ে এমন কোন কাজ করিনি যে জনগণের ক্ষতির কারণ হয়েছে। আমাকে নিয়ে কোন বিতর্ক নেই। তারপরেও দল মনোনয়ন না দেয়ায় জনগণের ভরসায় প্রার্থী হয়েছি। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, দল বহিস্কার করেছে করুক, এভাবে কতজনকে দল বহিস্কার করতে পারবে? অপর বহিস্কৃত উপজেলা মহিলা আ’লীগ আহŸায়ক ও ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী পিয়ারা বেগম বলেন, দল আমাকে মনোনয়ন না দিয়ে আমার প্রতি চরম অবিচার করেছে। তাই নির্বাচন করছি। নির্বাচন করার জন্যই বহিস্কার হয়েছি। আর এজন্য নির্বাচন করেই ছাড়ব।
উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক ও বিএনপি দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী আফজাল হোসেন সিকদার অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়া নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করে বলেন, পার্শ¦বর্তী গৌরনদী উপজেলায় যেভাবে নির্বাচন হয়েছে তা দেখে আগৈলঝাড়ার জনগণ ও তিনি নির্বাচন নিয়ে শঙ্কিত। তিনি প্রশাসন ও মিডিয়ার প্রতি সজাগ দৃষ্টি রাখার আহŸাণ জানিয়ে বলেন, একমাত্র মিডিয়াই নির্বাচনের আসল চিত্র জনসমক্ষে প্রকাশ করতে পারে এবং নির্বাচন নিরপেক্ষ করতে সহযোগিতা করতে পারে।
এদিকে দল থেকে বহিস্কারের খবর বিদ্রোহী প্রার্থীদের দমাতে পারেনি একটুও। ব্যাপক প্রচার প্রচারণায় মাঠে শক্ত অবস্থানে রয়েছেন তারা। প্রসঙ্গত, আগামী ২৩ মার্চ চতুর্থ দফার নির্বাচনে আগৈলঝাড়ায় ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এখানে ভোটার রয়েছে ৯৮ হাজার ৮শ’ ৯৪ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

খুলনায় সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ নিহত ২

খুলনা ব্যুরো : খুলনায় প্রাইভেটকারের ধাক্কায় মোটরসাইকেল চালক মাজহারুল ইসলাম (২৫) ও ...

আলমডাঙ্গায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ব্যবসায়ীর মৃত্যু

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে রাশেদুল ইসলাম (৫০) নামে এক ...