ব্রেকিং নিউজ
Home | বিবিধ | আইন অপরাধ | আগৈলঝাড়ায় দূর্গাপূজা উপলক্ষে আনসার নিয়োগে আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ

আগৈলঝাড়ায় দূর্গাপূজা উপলক্ষে আনসার নিয়োগে আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ

অপূর্ব লাল সরকার, আগৈলঝাড়া (বরিশাল) থেকে : বরিশালের আগৈলঝাড়ায় হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে ১৪১টি মন্ডপে নিরাপত্তার জন্য অস্থায়ী আনসার সদস্য নিয়োগে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ উঠেছে উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা ক্ষিতীশ চন্দ্র ফলিয়ার বিরুদ্ধে। সাড়ে তিন লাখ টাকার উপরে ঘুষ নিয়ে ৯শ’ অস্থায়ী আনসার নিয়োগ দিয়েছেন তিনি। এ নিয়ে দরিদ্র আনসার সদস্যেদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। ধার্যকৃত উৎকোচ না দেয়া হলে কাউকে নিয়োগ দেয়া হয়নি। ঘুষের টাকার ভাগ উপর মহলে দিতে হয় এমন কথা বলেছেন সংশ্লিষ্ট একজন।
আনসার সদস্য ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের ১৪১টি মন্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হবে। এই পূজামন্ডপে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার লক্ষ্যে পুলিশ সদস্যদের পাশাপাশি পূজার ক’দিনের জন্য অস্থায়ীভাবে ৯শ’ আনসার সদস্য নিয়োগ দেয়া হয়েছে। অধিক ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে ৮ জন, ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে ৬ জন ও সাধারণ স্থানে ৪ জন করে আনসার সদস্য নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে হতদরিদ্র ২শ’ ৮০ জন মহিলা সদস্য ও ৬শ’ ২০ জন পুরুষ সদস্য রয়েছে। প্রতিটি পূজামন্ডপে আনসার সদস্যের মধ্যে একজন করে পিসি রয়েছে। উপজেলার ৯শ’ অস্থায়ী আনসার সদস্য নিয়োগ দেয়ার সময় গৈলা ইউনিয়ন আনসার কমান্ডার আবু হানিফ মৃধা ও বাকাল ইউনিয়ন আনসার কমান্ডার কালাচাঁদ জয়ধরের সহযোগিতায় আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা ক্ষিতীশ চন্দ্র ফলিয়া প্রত্যেক আনসার সদস্যদের কাছ থেকে ৪শ’ টাকা করে ঘুষ আদায় করেছে। তাতে মোট ৩লাখ ৬০হাজার টাকা আদায় করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। প্রত্যেক বছরই দুর্গাপূজার সময় আনসার নিয়োগে এভাবে টাকা আদায় করা হয় বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক আনসার সদস্য জানান।
এ ব্যাপারে গৈলা ইউনিয়ন আনসার কমান্ডার আবু হানিফ মৃধা ও বাকাল ইউনিয়ন আনসার কমান্ডার কালাচাঁদ জয়ধর সাংবাদিকদের বলেন, আপনারা যা পারেন লিখেন তাতে আমাদের কিছু হবেনা। এর ভাগ উপর মহল পর্যন্ত পায়। আনোয়ার নামে এক আনসার বলেন, আমরা যে টাকা দেই তার অর্ধেক বরিশালে দিতে হয়। আমার যা কিছু করিনা কেন পরে আমরা আপনাদের সাথে যোগাযোগ করে বিষয়টির সমাধান করবো।
এ ব্যাপারে আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা ক্ষিতীশ চন্দ্র ফলিয়া জানান, আনসারদের কাছ থেকে আমি সরাসরি কোন টাকা তুলিনি। এ ব্যাপারে আবু হানিফ মৃধা জানেন। যেভাবে ভালো হয় তা আবু হানিফ ব্যবস্থা করবেন।
আনসার নিয়োগে টাকা নেয়া প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশ্রাফ আহম্মেদ রাসেল সাংবাদিকদের বলেন, আনসার নিয়োগে টাকা নেয়ার কোন বিধান নাই। আমি এখন পর্যন্ত টাকা নেয়ার কোন অভিযোগ পাইনি। কোন আনসার সদস্য অভিযোগ করলে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাদক,অবৈধ অস্ত্র ও ভারতীয় রুপিসহ গ্রেপ্তার ৩

জাকির হোসেন পিংকু,চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি: চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুরে ও শিবগঞ্জ উপজেলার ...

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৬লক্ষ ৩০ হাজার জাল ভারতীয় রুপিসহ গ্রেপ্তার ১

জাকির হোসেন পিংকু,চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি: চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার মনাকষা ইউনিয়নের চৌকা গ্রামে ...