ব্রেকিং নিউজ
Home | ফটো সংবাদ | অন্তর্বর্তীকালীন নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চায় বাসদ

অন্তর্বর্তীকালীন নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চায় বাসদ

স্টাফ রিপোর্টার : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর সংসদ ভেঙে দিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চায় বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ)। এছাড়া এই ধরনের অন্তর্বর্তীকালীন সরকার ব্যবস্থা কিভাবে দল নিরপেক্ষ করা যায় সে বিষয়ে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে জাতীয় মতামত সৃষ্টি করা জরুরি বলে মনে করছে দলটি।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সঙ্গে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় এসব দাবি জানান বাসদ। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় অন্যান্য নির্বাচন কমিশনাররা ছাড়াও ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব উপস্থিত ছিলেন। ১৪ সদস্য বিশিষ্ট দলটির নেতৃত্ব দেন বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় শুরু হওয়া এই সংলাপ চলে বেলা একটা পর্যন্ত।

সংলাপে শেষ বাসদের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিকদের বলেন, নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে বৈঠকে আমাদের পক্ষ থেকে ১৩ দফা সুপারিশ তুলে ধরা হয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম তফসিল ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে সংসদ ভেঙে দিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন, নির্বাচন কমিশন গঠনে আইন তৈরি, সরাসরি নির্বাচনের মাধ্যমে তিন আসনে একজন করে নারী প্রতিনিধি নির্বাচিত করা।

মতবিনিময় সভায় দলটি অনেকগুলো লিখিত দাবি জানায়। অবাধ, নিরপেক্ষ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের জন্য শুধুমাত্র রুটিন কাজ পরিচালনাকারী সরকারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য একটি বিধানের প্রস্তাব দিয়েছে দলটি। এই ধরনের অন্তর্বর্তীকালীন সরকার ব্যবস্থা কিভাবে দল নিরপেক্ষ করা যায় সে বিষয়ে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে জাতীয় মতামত সৃষ্টি করা জরুরি মনে করেন তারা।

নির্বাচন কমিশন গঠনের জন্য আলাদা আইন করারও দাবি জানিয়েছে বাসদ। তাদের অন্যান্য দাবির মধ্যে রয়েছে নির্বাচন কমিশনের জন্য আলাদা বাজেট দেয়া,  নির্বাচনী জামানত পাঁচ হাজার টাকার বেশি না করা, নির্বাচনী ব্যয় ১০ লাখের মধ্যে সীমিত রাখা, নির্বাচিত প্রতিনিধিদের জন্য আজীবন সম্মানি ভাতা চালু করা, নির্বাচনে কালো টাকা, পেশিশক্তি, সাম্প্রদায়িকতা নিয়ন্ত্রণ করা, নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী দলের প্রাপ্ত ভোটের অনুপাতে সংসদ সদস্য নির্বাচিত করা, আদালত কর্তৃক শাস্তি ব্যতীত শুধুমাত্র ফৌজদারি মামলায় চার্জশিট গৃহীত হলেই স্থানীয় সরকারের নির্বাচিত প্রতিনিধিদের বরখাস্ত না করা, পরীক্ষামূলকভাবে ইভিএম ব্যবহার করা ও নির্বাচনী বিরোধ মেটানোর জন্য স্বতন্ত্র ও আলাদা আদালত গঠনের দাবি জানায় দলটি। এছাড়া আগামীতে জাতীয় সংসদে সরাসরি নির্বাচনের মাধ্যমে তিন আসনে একজন করে নারী আসনের প্রস্তাব দিয়েছে দলটি।

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে অংশীজনদের সঙ্গে সংলাপ শুরু করেছে ইসি। এরই ধারবাহিকতায় এই বৈঠক হয়। ৩১ জুলাই সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, ১৬ ও ১৭ অগাস্ট গণমাধ্যম প্রতিনিধির সঙ্গে মতবিনিময় করেছে ইসি।

গত ২৪ আগস্ট থেকে নিবন্ধিত রজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে মতবিনিময় শুরু হয়েছে। এ পর্যন্ত ২২টি দলের সঙ্গে মতবিনিময় করলো ইসি। এছাড়া আজ বিকেল তিনটায় জাকের পার্টির সঙ্গে সংলাপে বসেছে ইসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

সৌদি যুবরাজকে ইসরায়েল সফরের আমন্ত্রণ

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক:  সৌদি যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমানকে ইহুদিবাদী ইসরায়েল সফরের আমন্ত্রণ জানানো ...

কুড়িগ্রাম-৪ আসনে মনোনয়ন-প্রত্যাশীদের তৎপরতা

স্টাফ রিপোর্টার : রৌমারী ও রাজীবপুর উপজেলা এবং চিলমারীর তিনটি ইউনিয়ন নিয়ে ...